বকের নানা সমস্যা নিয়ে রাতের ঘুম নষ্ট। সারা রাতের টেনশনে সকালে ত্বকের অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যায়। তাই ত্বকের যত্নের অন্য চিন্তা দূর করে রাতে আরাম করে একটা ঘুম দিন আর সকালে ঘুম থেকে উঠেই শুরু করুন ত্বকের যত্ন নেওয়া। কারণ সারাদিন কাজের চাপ, বাহিরে ঘুরাঘুরি, ধুলাবালি, রোদ বিভিন্ন সমস্যা থাকেই। তবে সকালেই যদি আপনি ত্বকের যত্ন ও প্রস্তুতি নিয়ে বের হোন তাহলে সারাদিনের ধকল সামলেও আপনার ত্বক থাকবে সুস্থ ও প্রাণবন্ত। তাই আজ যেনে নেই সকালেই ত্বকের যত্নে আমাদের কী কী করা উচিৎ।
সকাল থেকেই শুরু হোক ত্বকের যত্ন 

বকের নানা সমস্যা নিয়ে রাতের ঘুম নষ্ট। সারা রাতের টেনশনে সকালে ত্বকের অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যায়। তাই ত্বকের যত্নের অন্য চিন্তা দূর করে রাতে আরাম করে একটা ঘুম দিন আর সকালে ঘুম থেকে উঠেই শুরু করুন ত্বকের যত্ন নেওয়া। কারণ সারাদিন কাজের চাপ, বাহিরে ঘুরাঘুরি, ধুলাবালি, রোদ বিভিন্ন সমস্যা থাকেই। তবে সকালেই যদি আপনি ত্বকের যত্ন ও প্রস্তুতি নিয়ে বের হোন তাহলে সারাদিনের ধকল সামলেও আপনার ত্বক থাকবে সুস্থ ও প্রাণবন্ত। তাই আজ যেনে নেই সকালেই ত্বকের যত্নে আমাদের কী কী করা উচিৎ।


শরীর চর্চা: প্রতিদিন সকালে অন্তত ১ ঘণ্টা শরীরচর্চা বা়ডাবে আপনার উদ্যোগ, সুস্থ রাখবে শরীর, বাড়াবে পজিটিভ মানসিকতা। আর এর প্রভাব পরবে আপনার ত্বকের ওপর।

প্রোটিন খান: চেষ্টা করুন সকালের নাস্তায় প্রোটিনের পরিমান বাড়াতে। ডিম, বাদাম, দই জাতীয় জিনিস শরীরে কোলাজেনের মাত্রা বাড়ায়। কোলাজেন ত্বকের বলিরেখা রুখতে সাহায্য করে। চামড়া ঝুলে যাওয়ার সমস্যা থেকে রক্ষা করে কোলাজেন।

খাবারে প্রোটিনের পরিমান বেশি থাকলে চুল পড়ার সমস্যা যেমন কমে, তেমনই বাড়ে চুলের উজ্জ্বলতাও। পাশাপাশি অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকার ফলে সারাদিন বেশি খাওয়ার প্রবণতাও কমে।

গ্রিন টি: কফির বদলে সকালে উঠে পান করুন গ্রিন টি। গ্রিন টি-র মধ্যে থাকা প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া ভাব রুখতে সাহায্য করে।

এসপিএফ: সব ধরনের ত্বকের জন্যই প্রয়োজন সানস্ক্রিন। ত্বক রোদে পুড়ে যাওয়ার হাত থেকে যেমন রক্ষা করে সানস্ক্রিন, তেমনই সারাদিন ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকে।

হাইড্রেট করুন নিজেকে: সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস মৃদু গরম পানিতে অর্ধেক লেবুর রস ও এক চামচ মধু দিয়ে খান।

মুখে পানি দিন: সকালে উঠে মুখে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিলে শরীর, মনে আসবে তরতাজা ভাব। ব্যাগে রাখুন ওয়াটার স্প্রে। সারাদিনে ৪ ঘণ্টা পরপর স্প্রে করুন মুখে।

ব্যবহার করুন অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সিরাম: ভিটামিন সি বা ভিটামিন ই ত্বকের ডিহাইড্রেশন রুখতে সাহায্য করে। ফলে চেহারায় সহজে বয়সের ছাপ পড়ে না। ঘুম থেকে উঠে ভিটামিন ই ময়েশ্চার সিরাম অথবা অরিগা ফ্লাভো-সি সিরাম সারা শরীরে লাগানো হলে বজায় থাকে ত্বকের আর্দ্রতা।

Post A Comment: