গরমের কারণে শুধুমাত্র মেয়েরাই যে ত্বকের নানা সমস্যায় পড়ছেন তা নয়। সমস্যায় পড়ছেন ছেলেরাও। ছেলেদের ত্বক স্বাভাবিকভাবেই অনেক বেশি রুক্ষ হয়। বাইরে রোদে ঘোরাঘুরি, খেলাধুলা বা কাজকর্মের কারণে ধুলোবালিতে ছেলেদের ত্বকে দেখা দেয় নানা সমস্যা। বিশেষ করে গোসলের পর ত্বক হয়ে যায় খসখসে। এই শুষ্ক ত্বক থেকে মুক্তি পেতে হলে এর সঠিক যত্ন নিতে হয়। অন্যথায় চোখের নিচে কালোদাগ পড়তে পারে এবং চামড়া আরো বেশি শুষ্ক হয়ে যায়। আজকাল ছেলেদের ত্বকের জন্য বাজারে অনেক রকম ক্রিম, লোশন পাওয়া যায়। তারপরেও এই সকল প্রসাধনী ব্যবহারের পাশাপাশি ত্বকের বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।
গরমে পুরুষের ত্বকেও চাই সঠিক যত্ন 

গরমের কারণে শুধুমাত্র মেয়েরাই যে ত্বকের নানা সমস্যায় পড়ছেন তা নয়। সমস্যায় পড়ছেন ছেলেরাও। ছেলেদের ত্বক স্বাভাবিকভাবেই অনেক বেশি রুক্ষ হয়। বাইরে রোদে ঘোরাঘুরি, খেলাধুলা বা কাজকর্মের কারণে ধুলোবালিতে ছেলেদের ত্বকে দেখা দেয় নানা সমস্যা। বিশেষ করে গোসলের পর ত্বক হয়ে যায় খসখসে। এই শুষ্ক ত্বক থেকে মুক্তি পেতে হলে এর সঠিক যত্ন নিতে হয়। অন্যথায় চোখের নিচে কালোদাগ পড়তে পারে এবং চামড়া আরো বেশি শুষ্ক হয়ে যায়। আজকাল ছেলেদের ত্বকের জন্য বাজারে অনেক রকম ক্রিম, লোশন পাওয়া যায়। তারপরেও এই সকল প্রসাধনী ব্যবহারের পাশাপাশি ত্বকের বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।


স্ক্রাব করুন : নিয়মিত ত্বকে স্ক্রাব করা উচিৎ। রোদে বাইরে বের হলে ত্বকের উপরিভাগে কালো ছোপ দাগ পরে এবং ধুলোবালি জমে। ধুলোবালি ত্বকে ব্রণের সমস্যা সৃষ্টি করে। আপনি চাইলে এমন স্ক্রাব ব্যবহার করতে পারেন যা প্রতিদিন ব্যবহার করা যায়। বাইরে থেকে ফিরেই ত্বক দ্রুত স্ক্রাব করে ফেলুন।

ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করুন: ভ্যাপসা গরমে ত্বকের উপরিভাগ বেশিরভাগ সময় তৈলাক্ত দেখায়। তেলতেলে ত্বকে ধুলোবালি জমে ত্বকের উপরিভাগ কালচে করে ফেলে, ব্রণ বাড়ায়। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে টমেটো পিষে মুখে ঘষে ১৫ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের তৈলাক্ততা দূর হয়ে যাবে।

ত্বকের সুরক্ষা করুন: ত্বকের সুরক্ষায় অবহেলা করবেন না কখনোই। বাসা থেকে বের হওয়ার আগে অবশ্যই ত্বকে সানস্ক্রিন লাগিয়ে বের হবেন। উচ্চ মাত্রার এসপিএফ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন লাগাবেন। ত্বক অতিরিক্ত ঘেমে গেলে মুছে ফেলবেন। সেজন্য সাথে টিস্যু বা নরম রুমাল রাখুন।

ত্বক হাইড্রেট রাখুন: ডিহাইড্রেশনে পড়লে ত্বকের অনেক ক্ষতি হয়। ত্বকের রুক্ষতা ও শুষ্কতা বেড়ে যায়। ত্বকের উপরিভাগ ফেটে যায়। তাই ত্বককে হাইড্রেট রাখতে পরিমিত পরিমাণ পানি ও পানীয় পান করুন। দিনে ৮ গ্লাস পানি ও অন্যান্য পানীয় পান করবেন। এতে দেহ ও ত্বক হাইড্রেট থাকবে।

কিছু টিপস:


নিয়ম করে পরিমিত পানি পান করুন।

মৌসুমী ফল ও সবজি বেশি পরিমাণে খান।

আরামদায়ক পোশাক পরুন। (বেশি ঘাম হয় এমন পোশাক এড়িয়ে চলুন)

রোদে গেলে ছাতা, সানগ্লাস, পানির বোতল, রুমাল সাথে রাখুন।

গরমে অতিরিক্ত ঘাম বা ঘামের দূর্গন্ধ হলে তার ব্যবস্থা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন।

Post A Comment: