কদর্যতার নতুন নজির গড়লেন ভারতের কেরালার এক কলেজ শিক্ষক। কোঝিকোড়ের ফারুক ট্রেনিং কলেজের টি জওহর মুনাব্বির নামে ওই শিক্ষকের একটি ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে জওহরকে বলতে শোনা যাচ্ছে, মেয়েরা নাকি বাজারের কাটা তরমুজের মতো নিজের ঊর্ধ্বাঙ্গ দেখিয়ে বেড়ান!
 

কদর্যতার নতুন নজির গড়লেন ভারতের কেরালার এক কলেজ শিক্ষক। কোঝিকোড়ের ফারুক ট্রেনিং কলেজের টি জওহর মুনাব্বির নামে ওই শিক্ষকের একটি ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে জওহরকে বলতে শোনা যাচ্ছে, মেয়েরা নাকি বাজারের কাটা তরমুজের মতো নিজের ঊর্ধ্বাঙ্গ দেখিয়ে বেড়ান!


বিষয়টি জানাজানি হওয়া মাত্র ক্ষোভে ফেটে পড়েছে কেরালা। এসএফআইয়ের তরফে তরমুজ হাতে ফারুক কলেজের খেতরেই মিছিল করেন একদল শিক্ষার্থী। সোশ্যাল মিডিয়াতেও কাটা তরমুজ হাতে নিয়ে ছবি পোস্ট করছেন মেয়েরা। কেউ কেউ আবার ঊর্ধ্বাঙ্গ অনাবৃত করেও ছবি পোস্ট করেছেন।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জওহর ওই ক্লিপিংয়ে বলেছেন, তার কলেজের ৮০ শতাংশ শিক্ষার্থীই মেয়ে এবং বেশির ভাগই মুসলিম। তার বক্তব্য, ‘মেয়েরা বোরখা তো পরে, কিন্তু এমনভাবে পরে যাতে তাদের লেগিংস দেখা যায়। মুফতা (মাথার কাপড়) একেবারেই পরে না। কেবল একটি ওড়না ৩২ বার মুড়ে, ২৫ খানা পিন দিয়ে আটকে রাখে স্টাইলের জন্য।’

এরপরই আরও বিস্ফোরক হয়ে তিনি যোগ করেন, ‘যেভাবে বাজারে তরমুজ কেটে রাখা হয় ফলটা কত তাজা বোঝানোর জন্য, সেভাবে মেয়েরাও তাদের বক্ষস্থল দেখিয়ে পুরুষকে প্রলুব্ধ করতে চায়।’

তবে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, তিন মাস আগে ক্যাম্পাসের বাইরে ওই মন্তব্য করেছিলেন জওহর। তার দায় কলেজের নয়।

Post A Comment: