দেশের ১৩১টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয়টি পৌরসভাসহ চট্টগ্রাম ও খুলনা সিটি করপোরেশনের দুটি ওয়ার্ড এবং একটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে।
১৩১ ইউপি ও ৯ পৌরসভায় চলছে ভোট 

দেশের ১৩১টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয়টি পৌরসভাসহ চট্টগ্রাম ও খুলনা সিটি করপোরেশনের দুটি ওয়ার্ড এবং একটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে।


বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ, চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

ভোটগ্রহণ উপলক্ষে এসব এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য নিয়োগসহ ব্যাপক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি রয়েছে। নির্বাচনী এলাকার ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ও আনন্দমুখর পরিবেশে ভোট দিতে পারে সেজন্য যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্মসচিব এস এম আসাদুজ্জামান।

যুগ্ম সচিব জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে একজন অফিসারসহ তিনজন পুলিশ, অস্ত্রসহ চারজন আনসার এবং অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য ১৩ জনসহ সর্বমোট ২০ জন নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন থাকবে।

প্রতি ইউনিয়নে পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ান আনসারের দুটি করে মোবাইল টিম, বিজিবি এক প্লাটুন ও র‌্যাবের দুটি করে টিম মোতায়েন থাকবে। এছাড়া পটুয়াখালী, বরগুনা ও সন্দ্বীপের জন্য এক প্লাটুন কোস্ট গার্ড সদস্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৭৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে।

পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে সাধারণ কেন্দ্রে পাঁচজন পুলিশ, অস্ত্রসহ দুজন আনসার এবং অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য ১২ জনসহ সর্বমোট ১৯ জন মোতায়েন থাকবে এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে একজন অফিসারসহ ছয়জন পুলিশ, অস্ত্রসহ দুজন আনসার এবং অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য ১২ জনসহ ২০ জন মোতায়েন থাকবে।

এছাড়া পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ান আনসারের সমন্বয়ে মোবাইল টিম ৩২টি, স্ট্রাইকিং ফোর্স পাঁচটি, ১০ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ১৭টি টিম মোতায়েন থাকবে। পৌরসভা নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৩৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং চারজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

আসাদুজ্জামান জানান, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে সাধারণ কেন্দ্রে দুজন পুলিশ, অস্ত্রসহ দুজন আনসার এবং অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য ১০ জন ও একজন গ্রাম পুলিশসহ ১৫ জন মোতায়েন থাকবে এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে তিনজন পুলিশ, অস্ত্রসহ দুজন আনসার, এবং অঙ্গীভূত আনসার-ভিডিপি সদস্য ১০ জন ও একজন গ্রাম পুলিশসহ সর্বমোট ১৬ জন মোতায়েন থাকবে। এছাড়া পুলিশ, এপিবিএন ব্যাটালিয়ান আনসারের সমন্বয়ে ১০টি মোবাইল টিম, স্ট্রাইকিং ফোর্স তিনটি, তিন প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের তিনটি টিম মোতায়েন থাকবে। এছাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১০ জন এক্সিকিউটিভ ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে।

গতকাল মধ্যরাত থেকে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত পর্যন্ত বাস, ইজিবাইক, ট্রাক, অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, বেবিট্যাক্সি, কার, ট্যাক্সিক্যাব, জিপ, পিকআপ, টেম্পো ইত্যাদি যানবাহন চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

সেইসঙ্গে ভোটগ্রহণের আগের তিন দিন থেকে ভোটগ্রহণের দিন মধ্যরাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত যানবাহন চলাচল নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

Post A Comment: