আজকাল ফেসবুক ও যেকোনো মেসেঞ্জারে লিখা থেকে বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে বিভিন্ন ইমেজ বা ইমোজি। অনেক কিছু লিখার থেকে একটা ইমোজি দিলেই যেন অনেক কিছু লিখে ফেলা হয়। তাই দিনে দিনে ইমোজির জনপ্রিয়তা অনেক বেড়েই চলছে। তাছাড়া আজকাল মগ, পোশাক, ডেকোরেশন পিস সব কিছুতেই ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন ইমোজি। তাহলে আর বিকেলের আড্ডায় আপনার খাবার প্লেটটি কেনো বাদ যাবে? অতিথি আড্ডায় বা বিকেলের নাস্তায় প্লেট ভর্তি করে রাখতে পারেন নানা রকমের ইমোজি। আসুন দেখে নেই রেসিপিটি।
 

আজকাল ফেসবুক ও যেকোনো মেসেঞ্জারে লিখা থেকে বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে বিভিন্ন ইমেজ বা ইমোজি। অনেক কিছু লিখার থেকে একটা ইমোজি দিলেই যেন অনেক কিছু লিখে ফেলা হয়। তাই দিনে দিনে ইমোজির জনপ্রিয়তা অনেক বেড়েই চলছে। তাছাড়া আজকাল মগ, পোশাক, ডেকোরেশন পিস সব কিছুতেই ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন ইমোজি। তাহলে আর বিকেলের আড্ডায় আপনার খাবার প্লেটটি কেনো বাদ যাবে? অতিথি আড্ডায় বা বিকেলের নাস্তায় প্লেট ভর্তি করে রাখতে পারেন নানা রকমের ইমোজি। আসুন দেখে নেই রেসিপিটি। 


উপকরণ:


আলু- ৪/৫ টা,

পাউরিটি- ৫ পিস,

কর্ণফ্লাওয়ার- ২ টেবিল চামচ,

লবণ- পরিমাণ মতো,

পানি- পরিমাণ মতো (পাউরিটি ভিজানোর জন্য)

তেল- ভাজার জন্য,

জুসের পাইপ- চোখ বানানোর জন্য,

স্যুপের চামচ- স্মাইল বানানোর জন্য।

ইচ্ছে মতো অন্য মশলাও মিশানো যাবে।

ঝাল বা মিষ্টি যেটা খেতে চান সেই হিসেবে মসলা মিক্সড করে নিন।

প্রনালি:


প্রথমে ভালোভাবে আলু সেদ্ধ করে নিন। একটা বাটিতে সেদ্ধ আলু ভালোভাবে ভেঙে নিতে হবে যেন দানা না থাকে। তবে স্লাইজার দিয়ে স্লাইস করলে ভালো হয়। এতে টুকরা থাকে না। তারপর এতে কর্ণফ্লাওয়ার দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিতে হবে।

পাউরুটিগুলো একসাথে ভিজিয়ে নিতে হবে। তারপর দু হাত দিয়ে চেপে পানি ফেলে দিতে হবে যেন পাউরুটি থেকে সব পানি ঝড়ে যায়। তারপর পাউরুটিগুলো হাত দিয়ে ভেঙে ভেঙে মাখানো আলুর উপর দিতে হবে। তারপর লবণ দিয়ে মাখিয়ে নিতে হবে। চাইলে মরিচ, চিনি (পছন্দ অনুযায়ী) এসবও দেওয়া যাবে যদি ঝাল বা মিষ্টি খেতে চান। রেডি হয়ে গেলে মিশ্রণটি ১ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখতে হবে।

তারপর হাতে একটু তেল লাগিয়ে নিন। তারপর মিশ্রণ থেকে একটু রেডি করা মাখনো আলু নিয়ে বলের মতো গোল করে আস্তে একটু চাপ দিতে হবে। তারপর জুসের পাইপ দিয়ে দুটো চোখ বানাতে হবে। তারপর স্যুপ চামচ দিয়ে স্মাইল বানাতে হবে। পাইপ, চামচ, ছুরি দিয়ে এভাবে সেড, স্মাইলি, লাফিং, থামস, এংরি ফানি ইমোজি বানানো যাবে। যদি ক্রিসপি চান তাহলে ইমোজিগুলো আধা ঘণ্টা ফ্রিজে রাখতে হবে।

তেল গরম করে ইমোজিগুলো তেলে দিতে হবে। তেলে দেওয়ার পর চুলার আঁচ কমিয়ে দিতে হবে। ইমোজিগুলো ৩ মিনিট এমনি ভাজতে দিতে হবে। তারপর ৩ মিনিট পর এগুলো ফুলে আপনা আপনি উপরে চলে আসবে। যখন উপরে চলে আসবে তখন চুলার আঁচ বাড়িয়ে দিতে হবে। ইমোজিগুলো ৮ থেকে ১০ মিনিট ভাজতে হবে। শুরুতে তিন থেকে চার মিনিট কম আঁচে এবং বাকি চার থেকে পাঁচ মিনিট বেশি আঁচে ভাজতে হবে। গরম গরম ইমুজি পছন্দ মতো সস বা চাটনি দিয়ে পরিবেশন করুন।

কিছু টিপস:


. ফ্রিজে স্টোর করতে চাইলে ইমোজিগুলো হাফ ভেজে ঠাণ্ডা করে তারপর ফ্রিজে রাখুন।

. এভাবে ৬ থেকে ৭ দিন খাওয়া যাবে।

. বাড়িতে ছোট অতিথি আসলে এই খাবার দিয়ে খুব সহজেই তাকে খুশি করতে পারবেন।

. আপনার সোনামণির টিফিন বক্সেও ভরে তিতে পারবেন এই পটেটো ইমোজি

Post A Comment: