অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিতে আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকা সিএমএইচে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে শনিবার সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে জনপ্রিয় লেখক জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাত করে ফয়জুল হাসান নামের এক যুবক।
ড. জাফর ইকবালকে দেখতে সিএমএইচে প্রধানমন্ত্রী 

অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিতে আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকা সিএমএইচে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে শনিবার সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে জনপ্রিয় লেখক জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাত করে ফয়জুল হাসান নামের এক যুবক।


হামলার পর অধ্যাপক জাফর ইকবালকে প্রথমে নেওয়া হয় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ওইদিন রাতেই তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা সিএমএইচে নেওয়া হয়। এরপর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

রোববার সিএমএইচ কর্তৃপক্ষ এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে, ড. জাফর ইকবাল এখন মানসিকভাবে সুস্থ রয়েছেন। তবে পুরোপুরি সেড়ে উঠতে কিছু দিন সময় লাগবে।

উল্লেখ্য, বিষয়টি শুরু থেকেই ব্যক্তিগতভাবে গুরুত্ব দিয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারই অংশ হিসেবে আজ তিনি ড. জাফর ইকবালকে দেখতে সিএমএইচে গেলেন।

এদিকে, হামলার পরপরই ওই যুবককে ধরে গণপিটুনি দেয় শিক্ষার্থীরা। পরে তাকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বর্তমানে সেও চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে, হামলার দিন অর্থাৎ শনিবার দিনগত রাতেই সিলেট ও সুনামগঞ্জে অভিযান চালিয়ে হামলাকারীর চাচা ও মামাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী। আর সর্বশেষ রোববার রাত ১০টার দিকে সিলেট মহানগরের মদিনা মার্কেট এলাকা থেকে তাদের ফয়জুলের বাবা-মাকে আটক করেছে পুলিশ।

ফয়জুল সুস্থ হলেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে হামলার বিষয়ে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করা হবে বলে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Post A Comment: