অনেকেই আছেন যারা বিকেলে একটু চটপটে নাস্তা না পেলে মন খারাপ করেন। তাছাড়া বড়রা ডায়েট করলেও বাড়িতে ছোট বাচ্চা থাকলে তো কথাই নেই। বাধ্য হয়েই তাদের জন্য মিছু না কিছু তৈরি করতেই হয়। আপনার অথবা সোনামণির জন্য আজকে জেনে নিন বিকেলের নাস্তায় একেবারে রেস্টুরেন্টের স্বাদ পাওয়ার খুব সহজ একটি রেসিপি। চলুন শিখে নেয়া যাক ‘সুইডিশ মিটবল’ তৈরির ঝটপট রেসিপিটি।

    অনেকেই আছেন যারা বিকেলে একটু চটপটে নাস্তা না পেলে মন খারাপ করেন। তাছাড়া বড়রা ডায়েট করলেও বাড়িতে ছোট বাচ্চা থাকলে তো কথাই নেই। বাধ্য হয়েই তাদের জন্য মিছু না কিছু তৈরি করতেই হয়। আপনার অথবা সোনামণির জন্য আজকে জেনে নিন বিকেলের নাস্তায় একেবারে রেস্টুরেন্টের স্বাদ পাওয়ার খুব সহজ একটি রেসিপি। চলুন শিখে নেয়া যাক ‘সুইডিশ মিটবল’ তৈরির ঝটপট রেসিপিটি।


উপকরণ:

বাটার ১ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ ১ টি মাঝারী আকারে কুচি করে কাঁটা
লবণ স্বাদ মতো
ব্রেডক্রাম্ব দেড় কাপ
দুধ ১/৩ কাপ
সরিষা বাটা আধা চা চামচ
ডিম ৩ টি বড়
মুরগীর কিমা আধা কেজি
মধু ১ চা চামচ
গরম মসলা গুঁড়ো আধা চা চামচ
মরিচ গুঁড়ো স্বাদ বুঝে গোল
শসা সাজানোর জন্য

প্রণালি:

একটি প্যানে বাটার দিয়ে গলিয়ে নিন এবং গরম হলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে নরম করে ভেজে সামান্য লবণ দিয়ে লালচে করে ভেজে রাখুন।

দুধ ও ১ কাপ ব্রেডক্রাম্ব একসাথে মিশিয়ে আলাদা করে রাখুন। ১ টি ডিম ভালো করে ফেটিয়ে এতে সরিষা বাটা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে আলাদা করে রাখুন। এরপর ভেজে রাখা পেঁয়াজ কুচি, মুরগীর কিমা, মধু, গরম মসলা, স্বাদ বুঝে লবণ ও গোল মরিচ গুঁড়ো খুব ভালো করে হাতে মিশিয়ে নিন।

এরপর এই মিশ্রণ দিয়ে ছোট ছোট গোলা তৈরি করে নিন এবং খানিকক্ষণ ফ্রিজে রেখে সেট হতে দিন। সেট হয়ে যাওয়ার পর ফ্রিজ থেকে বের করে নিয়ে বাকি কাজ করে ফেলুন।

একটি বাটিতে বাকি ডিম ফেটিয়ে নিন। প্রতিটি বল ডিমে ডুবিয়ে তুলে বাকি ব্রেডক্রাম্বে গড়িয়ে নিন এবং ডুবো তেলে লালচে করে ভেজে তুলে নিন।

তেল গরম হয়ে গেলে আঁচ খুবই কম রাখবেন, তা না হলে উপরে পুড়ে যাবে কিন্তু ভেতরে হবে না। এরপর কিচেন টিস্যুতে নামিয়ে বাড়তি তেল ঝড়িয়ে নিন।
এবার নিজের পছন্দ মতো সস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন দারুণ সুস্বাদু এই সুইডিশ মিটবল।

Post A Comment: