গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেছেন ওই ছাত্রীর বাবা। এ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত রনি মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
 

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেছেন ওই ছাত্রীর বাবা। এ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত রনি মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।


গ্রেপ্তার রনি মিয়া উপজেলার টেপিরবাড়ী গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে মামলার প্রধান আসামি ও অপর অভিযুক্ত একই গ্রামে আনোয়ার হোসেন।

ছাত্রীর অভিভাবক ও পুলিশের ভাষ্যমতে, অভিযুক্ত রনি মিয়া প্রতিবেশী হওয়ার সুবাদে ছাত্রীর বাড়িতে  নিয়মিত যাওয়া-আসা করত। এ সুযোগে সে কয়েকবার ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাবসহ কুপ্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু ছাত্রীটি প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে কয়েকদিন যাবত উত্যক্ত করছিল রনি মিয়া।

গত রবিবার (১০ ডিসেম্বর) বিকালে অভিযুক্ত রনির বাড়ি খালি থাকার সুবাদে ছাত্রীকে কৌশলে মামলার অপর অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেনের মাধ্যমে রনিদের বাড়ি নিয়ে যায়। পরে রনি আনোয়ারের সহায়তায় বসতঘরের ভেতরে নিয়ে জোরপূর্বক যৌন নিপীড়ন করে।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক মোহসীন হোসাইন বলেন, মামলা হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতে নিজ বাড়ি থেকে অভিযুক্ত রনি মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ইতোমধ্যে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ছাত্রীকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপর অভিযুক্ত আনোয়ারকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

Post A Comment: