শুধু বিভিন্ন রকম ফাস্ট ফুড তৈরির জন্য না। আমাদের দেশে অনেক পরিবারেই সকালের খাবারের তালিকাতে প্রথম নাম থাকে পাউরুটির। রান্নার ঝামেলা থাকে না বলেই অনেকে পাউরুটি দিয়ে সকালে খাবার সেরে ফেলেন। তবে অনেক সময় পাউরুটি খাওয়া না হলে থেকে থেকে যায়। সেটা শক্ত হয়ে যায়। তখন আর সেটা খেতে ইচ্ছে করে না। পরে পরে নষ্ট হয়। সব শেষে পাউরুটির জায়গা হয় ময়লার বিনে। কিন্তু আপনি চাইলে কিছু ট্রিক্স খাটিয়ে বাশি পাউরুটিক আবার নতুনের মতো করে নিতে পারেন। করে নিতে পারেন খোয়ার উপযোগী।
 

শুধু বিভিন্ন রকম ফাস্ট ফুড তৈরির জন্য না। আমাদের দেশে অনেক পরিবারেই সকালের খাবারের তালিকাতে প্রথম নাম থাকে পাউরুটির। রান্নার ঝামেলা থাকে না বলেই অনেকে পাউরুটি দিয়ে সকালে খাবার সেরে ফেলেন। তবে অনেক সময় পাউরুটি খাওয়া না হলে থেকে থেকে যায়। সেটা শক্ত হয়ে যায়। তখন আর সেটা খেতে ইচ্ছে করে না। পরে পরে নষ্ট হয়। সব শেষে পাউরুটির জায়গা হয় ময়লার বিনে। কিন্তু আপনি চাইলে কিছু ট্রিক্স খাটিয়ে বাশি পাউরুটিক আবার নতুনের মতো করে নিতে পারেন। করে নিতে পারেন খোয়ার উপযোগী।


করণীয়:


বেশিদিন পাউরুটি রাখতে চাইলে এটাকে ফ্রিজার রাখতে পারেন তবে প্লাস্টিকে মুড়িয়ে।

যখন দরকার হবে, তখন একেবারে ঠাণ্ডা ভাব চলে গেলে তারপর একটা টোস্ট করে খেতে পারেন।

ফ্রিজারের ভীষণ ঠাণ্ডায় রিক্রিস্টালাইজেশন প্রায় থেমে যায় ফলে রুটিটা থেকে আর্দ্রতা বের হয় না।

আপনি কিনতে পারেন সেসব রুটি যেগুলো আগে থেকে স্লাইস করা থাকে না।

যে পাউরুটি নিজে স্লাইস করে নিতে হয়। এগুলো শক্ত হয় একটু দেরিতে। খাওয়ার জন্য স্লাইস করে নিন।

স্লাইস করা দিকটা নিচের দিকে দিয়ে এটা রান্নাঘরেরই কাপবোর্ড অথবা মিটসেফে রেখে দিন।

শীতের সময় আবহাওয়ায় মোটামুটি ৪ দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে।

ফয়েল অথবা প্লাস্টিক র্যা পারে মুড়িয়ে রাখতে পারেন পাউরুটি।

যে কারণে নষ্ট হয়:


পাউরুটি ফ্রিজে রাখলে নষ্ট হয়ে যায়। ফ্রিজে ঠাণ্ডায় রাখলে পাউরুটি ভালো থাকবে এটা মনে করেই আমরা ফ্রিজে রেখে দেই। কিন্তু এতে উপকারের বদলে অপকার হয় বেশি।

রেফ্রিজারেটরে আপনি যাই রাখেন না কেন, তা থেকে বেশ কিছুটা আর্দ্রতা বের হয়ে যায়। পাউরুটির ক্ষেত্রেও তাই ঘটে। নরম তুলতুলে পাউরুটি থেকে আর্দ্রতা বেরিয়ে গিয়ে তা খটখটে হয়ে যায়।

পাউরুটি তৈরি করার পর থেকেই এই প্রক্রিয়া শুরু হয়। যে ময়দা দিয়ে তৈরি করা হয় পাউরুটি, তার মাঝে প্রচুর স্টার্চের অণু থাকে। পাউরুটি তৈরির পর এটা ঠাণ্ডা হওয়া শুরু করলেই এই প্রক্রিয়ায় স্টার্চের অণুগুলো নিজেদের মাঝে বিন্যাস্ত হতে থাকে। ফলে পাউরুটি হয়ে ওঠে শক্ত এবং শুকনো।

পাউরুটি কিনতে গেলে যদি দেখেন তা শক্ত হয়ে গেছে তাহলে আপনি বুঝে নেন সেটা বাসি।

বাইরে রুম টেম্পারেচারে রেখে দিলে এই পাউরুটি একটা সময়ে শক্ত হয়ে অখাদ্য হয়ে যায়।

ফ্রিজে রাখলে তা আরো দ্রুত শক্ত হয়ে যাবে। একে তো এর ভেতর থেকে আর্দ্রতা চলে যাবে। তার ওপরে এই রিক্রিস্টালাইজেশন প্রক্রিয়াও দ্রুত হবে। ফলে একদিনেই কাঠ হয়ে যাবে রুটিটি।

Post A Comment: