সোনার দাম কমানোর দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই ফের বাড়ছে সোনার দাম। বাজুসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম বাড়ার কারণে সোনার দাম বাড়ানো হলো। সোমবার থেকে নতুন এ দর কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশে জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।
 

সোনার দাম কমানোর দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই ফের বাড়ছে সোনার দাম। বাজুসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম বাড়ার কারণে সোনার দাম বাড়ানো হলো। সোমবার থেকে নতুন এ দর কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশে জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।


রবিবার বাংলাদেশে জুয়েলার্স সমিতির সহ-সভাপতি সত্য রঞ্জন ব্রহ্ম  দাম বাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সত্য রঞ্জন বলেন, প্রতি ভরি সবচেয়ে ভালো মানের সোনার দর এক হাজার ৪০০ টাকা বেড়েছে। অন্যান্য মানের সোনার দরও প্রায় একই হারে বেড়েছে। সোমবার থেকে এই দাম কার্যকর হবে।

বাজুসের সহ-সভাপতি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম আবারও বেড়েছে। আমরা মুলত পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতকে ফলো করি, সেখানে দাম বাড়লে আমাদেরও দাম বাড়াতে হয়। এছাড়াও স্থানীয় বাজারে সরবরাহের তুলনায় চাহিদা বেশি থাকায় এ দাম বাড়ানো হলো। আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম কমে গেলে আবারও দাম কমানো হবে বলেও জানান সোনা ব্যবসায়ীদের এ নেতা।

সত্য রঞ্জন বলেন, শীতের সময় বিয়ের মৌসুম, বড়দিন এবং নতুন বছরকে সামনে রেখে স্থানীয় বাজারে সোনার দাম বেশ বেড়েছে। কিন্তু সে তুলনায় সরবরাহ কম। সার্বিক দিক বিবেচনা করে এবার আমরা সোনার দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

বাংলাদেশে শীতকালে সাধারণত বিয়ে বেশি হয়ে থাকে। এবারও শীতের শুরুতে গত ২৬ নভেম্বর সোনার দাম বাড়িয়েছিলেন ব্যবসায়ীরা। বিয়ের মৌসুমে চাহিদা বেড়ে যাওয়ার কথা জানিয়ে সে সময়ও প্রতি ভরি ভালো মানের সোনার দর এক হাজার ৪০০ টাকা বাড়ানো হয়। অন্যান্য মানের সোনার দরও ভরিতে ৫৫০ থেকে এক হাজার ২৮৩ টাকা পর্যন্ত বাড়ে।

তবে এরপর দুই সপ্তাহ না হতেই গত ১১ ডিসেম্বর কমানো হয় সোনার দাম। ২২ ও ২১ ক্যারেট সোনার দাম ভরিতে এক হাজার ২৮৩ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৯৩৩ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার দর এক হাজার ১৬৬ টাকা কমানো হয়।

এখন আবার সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে রবিবার বাজুস গণমাধ্যমে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পাঠায়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সোমবার থেকে সারা দেশে প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) ২২ ক্যারেট অর্থাৎ সবচেয়ে ভালো মানের সোনা ৪৯ হাজার ৩৩৯ টাকায় বিক্রি হবে। বর্তমানে এই মানের সোনা ৪৭ হাজার ৮২২ টাকায় পাওয়া যায়। ২১ ক্যারেট ও ১৮ ক্যারেট সোনার দরও ভরিতে এক হাজার ৪০০ টাকা করে বেড়েছে। এছাড়া সনাতন পদ্ধতির সোনার দাম ভরিতে ৮৭৫ টাকা বেড়েছে।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সোমবার থেকে ২১ ক্যারেট মানের সোনা ৪৭ হাজার ১২২ টাকায় বিক্রি হবে। রোববার পর্যন্ত এই মানের সোনার দর ছিল ৪৫ হাজার ৭২৩ টাকা। ১৮ ক্যারেট মানের সোনা বিক্রি হবে ৪১ হাজার ৮৭৪ টাকায়। রোববার পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে ৪০ হাজার ৪৭৪ টাকায়। এছাড়া সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি দাঁড়াবে ২৫ হাজার ৬৬১ টাকা, যা এখন ২৪ হাজার ৭৮৬ টাকায় মিলছে।

বাজুসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এনে বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সর্বসম্মত মতামতের ভিত্তিতে ২৫ ডিসেম্বর সোমবার থেকে সোনার নুতন দাম কার্যকর হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের হয়রানি বন্ধ এবং জাতীয় স্বার্থে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে ঘোষিত স্বর্ণ নীতিমালা দ্রুত প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়।

চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে এই বছরের মধ্যে স্বর্ণ নীতিমালা করার ঘোষণা দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। কিন্তু বছর শেষ হলেও এখন পর্যন্ত কোনো নীতিমালার ঘোষণা দেয়নি সরকার।

Post A Comment: