মোবাইল চুরির অপবাধ দিয়ে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের বামনী এলাকায় পিয়াস নামে (৪) এক শিশুকে বস্তাভরে নির্যাতনের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন- রাকিব হোসেন ও রিফাত হোসেন।
Torture-of-mobile-theft-Child-detention 

মোবাইল চুরির অপবাধ দিয়ে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের বামনী এলাকায় পিয়াস নামে (৪) এক শিশুকে বস্তাভরে নির্যাতনের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন- রাকিব হোসেন ও রিফাত হোসেন।


বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বামনী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে পুলিশ।

আটক রাকিব বামনী উপজেলার তৌহিদুল ইসলামের ছেলে ও রিফাত ওই এলাকার তরিকুল ইসলামের ছেলে।

বর্তমানে শিশু পিয়াস নোয়াখালীতে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শিশুর পরিবার ও পুলিশ জানায়,  বুধবার বিকেলে রাকিব হোসেনের একটি মোবাইল ফোন কে বা কারা নিয়ে যায়। ওই মোবাইল ফোন চুরির অপবাদ দিয়ে সন্ধ্যায় পিয়াসকে ডেকে নেয় রাকিব হোসেন। চুরির অপবাধ দিয়ে বেদম মারধর করে। এক পর্যায়ে বস্তাবন্দি করে নির্যাতন করা হয় বলে দাবি করেন শিশুর বাবা। শিশু পিয়াসকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পিয়াসের অবস্থায় আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন,  সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মো. নাছির উদ্দিন। তিনি জানান, শিশু পিয়াসের চোখ ও মুখে মারাত্মক জখমের চিহ্ন রয়েছে।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম আজিজুর রহমান মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত রাকিব হোসেন ও রিফাত হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Post A Comment: