গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের ধনিয়াল গ্রামে লাভলী বেগম (৩৫) নামে ঘুমন্ত এক গৃহবধূকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। লাভলী বেগম শুক্রবার ওই দুই ভাইকে আসামি করে স্থানীয় থানায় মামলা করেছেন।
 

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের ধনিয়াল গ্রামে লাভলী বেগম (৩৫) নামে ঘুমন্ত এক গৃহবধূকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। লাভলী বেগম শুক্রবার ওই দুই ভাইকে আসামি করে স্থানীয় থানায় মামলা করেছেন।


লাভলী বেগম জানান, তার ভাসুর সাইফুল ইসলাম (৪৫) ও দেবর ফুলমিয়া (৩২) বিভিন্ন স্থান থেকে উঠতি বয়সের নারীদের বাড়িতে এনে অনৈতিক কার্যকলাপ চালায়। এতে আমি বাধা দেওয়ায় তারা আমার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে রোববার ভোর ৫টায় ঘরে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় তারা লোহার রড দিয়ে আমাকে মারধর করে আহত করে। পরে আমাকে স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করান।


এ প্রসঙ্গে কথা বলার জন্য একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও সাইফুল কিংবা ফুলমিয়াকে পাওয়া যায়নি। তবে তাদের প্রতিবেশী জহুরুল ইসলাম ও খাজামিয়া এ অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা না আসলে হয়তো লাভলী বেগমকে মেরেই ফেলতো।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার সাখোয়াত হোসেন সৈকত বলেন, লাভলী বেগমের মাথার সামনের দিকে গুরুতর জখম হয়েছে। তার ডান হাতের কব্জির ওপরে ভেঙে গেছে। এ ছাড়া লাভলীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন আছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে পুরোপুরি ভাল হতে আরো কয়েক দিন সময় লাগবে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি/তদন্ত) আল মামুন মো. নাজমুল আহমেদ জানান, লাভলী বেগম স্বাক্ষরিত একটি মামলা পাওয়া গেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য মামলার নথিপত্র বৈরাগীর হাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জকে দেওয়া হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ।

Post A Comment: