নরসিংদীতে নিজের আট মাসের শিশুসন্তানকে গলা কেটে হত্যা করলেন বাবা। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে রায়পুরা উপজেলার মরজালে এ ঘটনা ঘটে। শিশু মাহিনের লাশ উদ্ধার করেছে রায়পুরা থানা পুলিশ। ঘটনার পর মাদকাসক্ত বাবা আপন মিয়া পলাতক রয়েছেন। তিনি সদর উপজেলার আলোকবালী বাখারনগরের বাবুল মিয়ার ছেলে।
নরসিংদীতে ৮ মাসের শিশুকে হত্যা করল বাবা! 

নরসিংদীতে নিজের আট মাসের শিশুসন্তানকে গলা কেটে হত্যা করলেন বাবা। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে রায়পুরা উপজেলার মরজালে এ ঘটনা ঘটে। শিশু মাহিনের লাশ উদ্ধার করেছে রায়পুরা থানা পুলিশ। ঘটনার পর মাদকাসক্ত বাবা আপন মিয়া পলাতক রয়েছেন। তিনি সদর উপজেলার আলোকবালী বাখারনগরের বাবুল মিয়ার ছেলে।


এ ঘটনায় মাহিনের চাচা ও দাদাকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের মা মারুফা আক্তার জানান, ‘গত জুলাই মাসের ১৫ তারিখ আমাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই আমাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিযার্তন করত । নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়ি নবীনগর বড়াই গ্রামে চলে যায়। গত রোববার আমার শ্বশুর বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়িতে নিয়ে আসেন। ঘটনার রাতে তাকে বলেছি তুমি কাজকর্ম না করলে বাবুকে কি খাবাব ? এই ছিল আমার কথা। সকালে দেখি আমার নিজ ঘরে বাবুর গলাকাটা লাশ পড়ে আছে। আমি আমার ছেলের হত্যার বিচার চাই।

রায়পুরা থানার এসআই কামাল হোসেন জানান, সকালে মা মারুফা আক্তার তার রান্নার কাজে ব্যস্ত ছিলেন। আর শিশুর পাশে ঘুমিয়ে ছিলেন তার বাবা। কাজ শেষে নিজ ঘরে প্রবেশ করে শিশুটিকে গলাকাটা অবস্থায় দেখতে পান তিনি। ঘটনার পর বাবা পলাতক রয়েছেন। শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পেরণ করা হবে। এ ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

Post A Comment: