ভোলা-বরিশাল-লক্ষ্মীপুর মহাসড়কের ভোলা অংশে কাভার্ডভ্যান ও যাত্রীবাহী নছিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে মো. লিটন (১৮) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় গুরুতর আহত হন আরও ছয়জন। নিহত লিটন পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ছিডু বেপারীর ছেলে।
The-death-of-young-man-in-Bholas-covered-in-clash-clash 

ভোলা-বরিশাল-লক্ষ্মীপুর মহাসড়কের ভোলা অংশে কাভার্ডভ্যান ও যাত্রীবাহী নছিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে মো. লিটন (১৮) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় গুরুতর আহত হন আরও ছয়জন। নিহত লিটন পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ছিডু বেপারীর ছেলে।


বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা লাহরী বাজার টাওয়ারের পশ্চিম পার্শ্বে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একটি কাভার্ডভ্যান ইলিশা ফেরিঘাট থেকে বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে এসে লাহরী বাজার টাওয়ারের কাছে একটি যাত্রীবাহী নছিমনকে সামনে থেকে ধাক্কা দেয়। এতে নছিমনটি দুমড়েমুচড়ে যায়। নছিমনে থাকা যাত্রী লিটন কাভার্ডভ্যানের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। অপর ছয় যাত্রী আহত হন। আহতরা হলেন, মো. সাগর, মো. আজাদ, আইয়ুব, আমির, নাজমা বেগম, ও শামিম।

পরে স্থানীয়রা এসে আহতদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠায়। নিহত লিটনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

ইলিশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই সহিদুল ইসলাম ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ঘটনাস্থল থেকে কাভার্ডভ্যানটি আটক করেছি। তবে গাড়ির চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা যায়নি। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Post A Comment: