নীলফামারীর শালমারার একটি মন্দির থেকে দিপু চন্দ্র রায় (২২) নামে এক পুলিশ কনস্টেবলের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।
 

নীলফামারীর শালমারার একটি মন্দির থেকে দিপু চন্দ্র রায় (২২) নামে এক পুলিশ কনস্টেবলের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।


দিপু চন্দ্র টুপামারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের শালমারা শাহপাড়া গ্রামের জলেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে। ছয় মাস আগে সদর উপজেলার পলাশবাড়ি ইউনিয়নের তরুণীবাড়ি গ্রামের রতেশ্বর রায়ের মেয়ে গৌরী রায়ের সঙ্গে বিয়ে হয় তার।

দিপুর স্ত্রী গৌরি রায় জানান, কালিপূজার তিন দিন আগে বাড়িতে আসেন দিপু। চাকরিতে যোগদানের জন্য রবিবার তার ঢাকায় যাওয়ার কথা ছিল। এজন্য শনিবার সন্ধ্যায় টিকিট কাটার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন তিনি। এরপর আর বাড়ি ফেরেননি।

দিপুর চাচি গীতা রানী রায় জানান, সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে পার্শ্ববর্তী বুড়ি মন্দিরে দিপুর ঝুলন্ত লাশের কথা জানতে পারি আমরা। পরে সেখানে গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করি।

ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য রশিদুল ইসলাম জানান, বেলা তিনটার দিকে বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশকে খবর দেই। স্থানীয়রা ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে আমাকে জানায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে পুলিশ তৎপরতা শুরু করেছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।

Post A Comment: