তিন দিনের সরকারি সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। মঙ্গলবার দুপুর ২টা ২৫ মিনিটে রাজধানীর কুর্মিটোলায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু বিমান ঘাঁটিতে তাকে বহনকারী বিশেষ বিমানটি অবতরণ করে। সেখানে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত তাকে স্বাগত জানিয়েছেন।
 

তিন দিনের সরকারি সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। মঙ্গলবার দুপুর ২টা ২৫ মিনিটে রাজধানীর কুর্মিটোলায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু বিমান ঘাঁটিতে তাকে বহনকারী বিশেষ বিমানটি অবতরণ করে। সেখানে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত তাকে স্বাগত জানিয়েছেন।


মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকায় অবস্থিত ভারতীয় হাইকমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা শ্রী রঞ্জন মন্ডল পরিবর্তন ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রঞ্জন মন্ডল জানিয়েছেন, অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সাথে ভারতের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক বিষয়ক বিভাগের সচিব সুভাষ চন্দ্র গর্গ ও অন্যান্য উর্ধতন কর্মকর্তা এবং ভারতীয় শিল্প ও বণিক সমিতি (এফআইসিসিআই)’র ৩০ সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল রয়েছেন।

জানা গেছে, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক ছাড়াও তিনি হোটেল সোনারগাঁওয়ে দুটি সেমিনারে বক্তব্য রাখবেন।

দুই মন্ত্রী ২০১৫ সালের জুনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর এবং ২০১৭ সালের এপ্রিলে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে গৃহীত অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং উন্নয়ন অংশীদারিত্ব উদ্যোগ সমূহের অবস্থা পর্যালোচনা করবেন বলে জানা গেছে।

এছাড়া ২০১৭ সালের এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে বাংলাদেশকে সাড়ে ৪'শ কোটি মার্কিন ডলারের ঋণ রেখা ঘোষণা করা হয়। ২০১৭ সালের ৪ অক্টোবর ভারত ও বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রীদের উপস্থিতিতে তৃতীয় ঋণ রেখা বাস্তবায়নের জন্য চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এর ফলে গত ৬ বছরে বাংলাদেশকে ভারতের মোট ঋণ রেখা ৮'শ কোটি ডলারে গিয়ে দাঁড়াবে। তৃতীয় ঋণ রেখা চুক্তিটি স্বাক্ষর হলে বাংলাদেশের অগ্রাধিকার প্রাপ্ত বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো প্রকল্পের বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।

এছাড়াও দুই মন্ত্রীর উপস্থিতিতে বিনিয়োগসমূহের বৃদ্ধি ও সুরক্ষার জন্য ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে চুক্তির উপর যৌথ ব্যাখ্যামূলক পত্রও স্বাক্ষরিত হবে।

সফরকালে ভারতের অর্থমন্ত্রী পলিসি রিসার্চ ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশ এবং ভারতীয় হাইকমিশনের উদ্যোগে ‘ভারত সরকারের ম্যাক্রো ইকোনোমিক ইনিশিয়েটিভ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন। ভারত ও বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী যৌথভাবে ভারতীয় হাই কমিশনের পক্ষ থেকে স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া’ র ক্যাশলেস ভিসা সার্ভিস পরিচালনার একটি নুতন স্কিম সেবারও উদ্বোধন করবেন। এছাড়া দুই মন্ত্রী এক্সিম ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার ঢাকা কার্যালয়ও উদ্বোধন করবেন।

Post A Comment: