বরিশালে স্ত্রী ও সন্তানদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মোক্তার বেপারী (৪৫) নামের এক দিনমজুর খুন হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়ায় ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনা পর মোক্তার বেপারীকে আহত অবস্থায় শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টায় তার মৃত্যু হয়।
Barisal-workers-and-children-killed-in-child-custody 

বরিশালে স্ত্রী ও সন্তানদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মোক্তার বেপারী (৪৫) নামের এক দিনমজুর খুন হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়ায় ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনা পর মোক্তার বেপারীকে আহত অবস্থায় শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টায় তার মৃত্যু হয়।


এ ঘটনায় কাউনিয়া থানা পুলিশ নিহত মোক্তার হোসেনের স্ত্রী মনিরা বেগম (৩৮), তার মেয়ে বরিশাল মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী তানজিলা আক্তার ও ছেলে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আফিজুল ইসলামকে আটক করেছে। প্রাথমিকভাবে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন তারা।

নিহত মোক্তার বেপারীর বোন শিল্পী বেগম জানান, ২০ বছর আগে বানারীপাড়া উপজেলার চাখারের বাসিন্দা মজিদ হাওলাদারের কন্যা মনিরা বেগমের সাথে বিয়ে হয় বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া গ্রামের অফেজউদ্দিন বেপারীর ছেলে মোক্তার বেপারীর। তবে তাদের সংসার জীবন সুখে কাটলেও বছর তিনেক ধরে সন্তানদের পড়ালেখা ও আন্যান্য খরচের টাকার জন্য পেশায় রাজমিস্ত্রীর জোগালে মোক্তারের ওপর চাপ দিতে থাকে মনিরা বেগম। এসব বিষয়াদি নিয়ে পারিবারিক কলহের কারণেই মোক্তারকে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানার এসআই তানজিল আহমেদ জানান, স্ত্রী ও সন্তানরা খুন করেছে এমন ঘটনা জানতে পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত মোক্তার হোসেনের স্ত্রী ও দুই সন্তানকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যার দায় স্বীকার করেছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং এ ঘটনায় মামলা রজু করা হবে।

বরিশাল শেবাচিমের সার্জারী ইউনিটের ডা. মো. ইখতিয়ার আহসান জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মোক্তার ব্যাপারীর মৃত্যু হয়েছে।

Post A Comment: