য়ানমার সেনাবাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে পরিবারের সঙ্গে বাংলাদেশে আসতে নৌকায় করে নাফ নদী পাড়ি দিচ্ছিল ছোট্ট একটি শিশু। কিন্তু প্রবল স্রোতে নৌকাটি ডুবে গেলে ডুবে যায় শিশুটিও। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশে এসেছেন ঠিকই তবে জীবিত নয়, লাশ হয়ে।
The-body-of-the-Rohingya-child-floated-in-the-sea 

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে পরিবারের সঙ্গে বাংলাদেশে আসতে নৌকায় করে নাফ নদী পাড়ি দিচ্ছিল ছোট্ট একটি শিশু। কিন্তু প্রবল স্রোতে নৌকাটি ডুবে গেলে ডুবে যায় শিশুটিও। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশে এসেছেন ঠিকই তবে জীবিত নয়, লাশ হয়ে।


শুক্রবার সকালে কক্সবাজারের টেকনাফে শাহপরীর দ্বীপ পশ্চিমপাড়া সাগর উপকূল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাইন উদ্দিন খান বলেন, বৃহস্পতিবার টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ উপকূলের কাছে সাগরে রোহিঙ্গাবাহী দুটি নৌকা ডুবে যায়। এ ঘটনায় আজ সকালে এক রোহিঙ্গা শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে গতকাল থেকে আজ সকাল পর্যন্ত ছয়জনের লাশ উদ্ধার হলো।

গতকালের নৌকাডুবির ঘটনায় আরও অনেকে নিখোঁজ আছে। নিখোঁজ হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে একজন বাংলাদেশিও রয়েছে বলে জানা গেছে।

গত ২৯ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল পর্যন্ত নাফ নদী ও সাগরে রোহিঙ্গাবাহী ২৩টি নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় মোট ১১১ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে শিশু ৫৮, নারী ৩০ ও পুরুষ ২৩ জন।

Post A Comment: