মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্মনিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই। কিভাবে হাসপাতালে সন্তান জন্ম দিতে হয় সে বিষয়েও তাদের কোনো ধারণা নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।
 

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্মনিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই। কিভাবে হাসপাতালে সন্তান জন্ম দিতে হয় সে বিষয়েও তাদের কোনো ধারণা নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।


বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

মোহাম্মদ নাসিম জানান, মিয়ানমারে থাকাকালীন রোহিঙ্গা এই জনগোষ্ঠী পুরোপুরি স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত ছিল। তারা জানেনা কীভাবে জন্মনিয়ন্ত্রণ করা হয়। এসব বিষয়ে তাদের জানাতে রাখাইনের বার্মিজ ভাষায় লিফলেট তৈরি করেছে সরকার। নিজস্ব ভাষায় তৈরি লিফলেট দিয়ে তাদের এসব বিষয়ে জানানো হবে।

সংবাদ সম্মেলনে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য ১০টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। মেডিকেল টিমগুলো ৮ থেকে ১০ প্রকার ওষুধ এবং তিন ধরনের অস্থায়ী জন্মনিয়ন্ত্রণ সামগ্রী (কনডম, খাবার বড়ি, তিনমাস মেয়াদী ইনজেকশন) বিতরণ করছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, রোহিঙ্গাদের উপর নির্মম অত্যাচার বন্ধে বিশ্ববাসীকে এগিয়ে আসতে হবে। এছাড়া নিজ দেশের নাগরিকদের যেন মিয়ানমার ফেরত নেয় সেজন্য দেশটির উপর চাপ দিতে হবে। চাপ দিয়ে এসব নাগরিকদের সেদেশে ফিরিয়ে নিতে বাধ্য করতে হবে।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সু চি তার বক্তব্যে মিথ্যাচার করেছেন। তার বক্তব্য কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘অনেক মানুষ। সেখানে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা কাজ করছে। শুরুতে সমন্বয়হীনতা থাকলেও এখন নেই। এখন সব সংস্থাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করেই কাজ করা হচ্ছে।’

Post A Comment: