রাজশাহীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১৮টি দাবি জানাবে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ। আগামী বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজশাহীর জনসভায় আগমন উপলক্ষে এই দাবিনামা প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী আন্তরিক হবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন রাজশাহীর এই সামাজিক সংগঠনটির নেতারা।
Rajshahabasi-will-demand-18-demands-from-the-Prime-Minister 

রাজশাহীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১৮টি দাবি জানাবে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ। আগামী বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজশাহীর জনসভায় আগমন উপলক্ষে এই দাবিনামা প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী আন্তরিক হবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন রাজশাহীর এই সামাজিক সংগঠনটির নেতারা।


মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিশেষ জরুরি সভায় প্রধানমন্ত্রীকে ১৮টি দাবি জানানোর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সভাপতি মো. লিয়াকত আলী। সভায় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে রাজশাহীর উন্নয়নে বিভিন্ন দাবি উপস্থাপন করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান।

তাদের দাবিগুলোর মধ্যে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও শিল্পকারখানায় গ্যাসের সরবরাহ নিশ্চিতকরণ, আবেদনকারীদের বাসাবাড়িতে গ্যাসের সংযোগ স্থাপন, গঙ্গা ব্যারেজ নির্মাণ প্রকল্প পুনঃবিবেচনায় বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ ও উত্তর রাজশাহী সেচ প্রকল্প বাস্তবায়ন, সিএনজি স্টেশন স্থাপন অন্যতম।

পরিষদের অন্য দাবির মধ্যে রয়েছে- রাজশাহী-ঢাকা বিরতিহীন ও রাজশাহী থেকে চট্রগ্রাম সরাসরি ট্রেন সার্ভিস চালু, আব্দুলপুর-রাজশাহী-রহনপুর ডুয়েল গেজ রেল লাইন নির্মাণ, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়ন, ভূখণ্ড রক্ষায় স্থায়ী নদী তীর প্রতিরক্ষা, কৃষিভিত্তিক ইপিজেড প্রতিষ্ঠা, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ক্রিকেট টেস্ট ভেন্যু স্থাপন ও পদ্মা নদীর চরে সরকারিভাবে অর্থনৈতিক জোন স্থাপন।

এছাড়া আম, টমেটোসহ অন্যান্য ফল সংরক্ষণে কোল্ড স্টোরেজ স্থাপন, নারী শিল্পোদ্যোক্তাদের বিশেষ ঋণ সহায়তা, চাঁপাইনবাগঞ্জের সঙ্গে রাজশাহীর নীবিড় যোগাযোগ স্থাপনের জন্য একটি সাটল ট্রেনসহ পদ্মা নদীর ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নদীপথে পণ্য সরবরাহ ব্যবস্থার দাবির কথাও উল্লেখ করেন পরিষদের নেতারা।

সভায় রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান বলেন, এসব দাবিতে রাজশাহীর মানুষ দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন সংগ্রাম করছেন। বছরের পর বছর ধরে নানা আশ্বাস থাকলেও দাবিগুলো পূরণ হচ্ছে না। এ কারণে রাজশাহীবাসী অনেকটায় হতাশ। এখন প্রধানমন্ত্রীর আগমনে এখানকার উন্নয়ন বার্তা শুনতে রাজশাহীবাসী অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাংগাঠনিক সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু, সহ-সভাপতি হারুনার রশিদ, কল্পনা রায়, অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, অঙ্কুর সেন, সেলিনা বেগম, মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু, সমাসেবক নিযাম উদ্দিন, শাহীনা বেগম, সাগরিকা বেগম, রাশেদা বেগম, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বজলে রেজবি আল হাসান মুঞ্জিল প্রমুখ।

Post A Comment: