সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় কলেজছাত্রী সাউদি আক্তার সারমিন সুমি নামে এক কলেজছাত্রীকে হত্যার দায়ে তার বাবা সুরুজ সর্দার ও সৎ মা ইয়াছমিন আক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
 

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় কলেজছাত্রী সাউদি আক্তার সারমিন সুমি নামে এক কলেজছাত্রীকে হত্যার দায়ে তার বাবা সুরুজ সর্দার ও সৎ মা ইয়াছমিন আক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।


গতকাল বুধবার নিহত ছাত্রীর মামা আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে তাহিরপুর থানায় আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে একটি মামলা করেন। পরে রাতে নিহত কলেজছাত্রীর বাবা ও সৎ মাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের সুনামগঞ্জ জেলহাজতে পাঠিয়েছে তাহিরপুর থানা পুলিশ।

এলাকাবাসী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে খাবার খাওয়ার সময় সুমি নিজ বাড়ির রান্নাঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। পরিবারের লোকজন তাকে ঝুলতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

স্থানীয় অনেকে জানান, বাবা সুরুজ মিয়া ও সৎ মা প্রায়ই সুমিকে শারীরিক নির্যাতন করতো। ঘটনার দিনও তাকে মারধর করা হলে সুমি আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নন্দন কান্তি ধর দুজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Post A Comment: