বিয়ের দাওয়াত খেয়ে অর্ধশতাধিক বরযাত্রী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তির ঘটনায় নাশকতা যাচাইয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাতদিনের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
 

বিয়ের দাওয়াত খেয়ে অর্ধশতাধিক বরযাত্রী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তির ঘটনায় নাশকতা যাচাইয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাতদিনের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


এদিকে বুধবার সকালে অসুস্থ বরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগন্জ উপজেলার সিংগারোল গ্রামের আমিনুল হকের ছেলে জাহিদুলের পাশর্^বর্তী রনসিয়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের কন্যা আর্জিনা বেগম (১৯) কে গত সোমবার বিয়ে করেন। বিয়ে উপলক্ষে ছেলের বাড়ি থেকে নারী পুরুষ ও শিশুসহ অর্ধশতাধিক বরযাত্রী মেয়ের বাড়িতে যায়। সেখানে সন্ধ্যায় খাওয়া দাওয়া সেরে কনে নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসেন বরপক্ষ। পরদিন মঙ্গলবার বিকেল থেকে বরসহ বেশিরভাগ বরযাত্রীর পেট ব্যাথা, ডায়রিয়া, মাথা ঘোরা ও জ্বর শুরু হয়। অবস্থা খারাপ হতে থাকলে বরসহ বেশিরভাগ বরযাত্রী মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ ডব্লিউ এম রায়হান শাহ রাতেই হাসপাতালে পরিদর্শন করে রোগীদের খোঁজ খবর নেন। সেই সাথে ঘটনাটি নাশকতামূলক কিনা তা যাচাই করতে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদকে প্রধান করে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. হুমাউন কবির, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা আমিরুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান হুমাউন কবির (জাবরহাট) এবং ইউপি সদস্য মনির উদ্দীনকে কমিটির সদস্য করা হয়। আগামী ৭ দিনের  মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. হুমায়ুন কবির জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে বেশিরভাগ বরযাত্রী হাসপাতালে আসে। আর বুধবার সকালে হাসপাতালে ভর্তি হয় বর জাহিদুল ইসলাম(২৪)। ইতোমধ্যে অনেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। অন্যরা এখনো হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তিনি আরো জানান, অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে বরযাত্রীরা হাসপাতালে ভর্তি হয়।

তদন্ত কমিটির প্রধান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বুধবার পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে অসুস্থ রোগীদের সাথে কথা বলেন।

Post A Comment: