গেল এক সপ্তাহ শুধু ইউরোপ নয়, গোটা ফুটবল বিশ্বই মশগুল ছিল নেইমারকে নিয়ে। নাটকের যেন শেষ নেই। তবে শেষ পর্যন্ত সকল নাটকেরই অবসান ঘটলো। কাতালান ক্লাব ছেড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইতেই (পিএসজি) ঘর বাঁধলেন ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমার। ফরাসি ক্লাবের সঙ্গে হয়ে গেল তার পাঁচ বছরের চুক্তি। নিজেদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আনুষ্ঠানিকভাবে খবরটি নিশ্চিত করেছে পিএসজি।


গেল এক সপ্তাহ শুধু ইউরোপ নয়, গোটা ফুটবল বিশ্বই মশগুল ছিল নেইমারকে নিয়ে। নাটকের যেন শেষ নেই। তবে শেষ পর্যন্ত সকল নাটকেরই অবসান ঘটলো। কাতালান ক্লাব ছেড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইতেই (পিএসজি) ঘর বাঁধলেন ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমার। ফরাসি ক্লাবের সঙ্গে হয়ে গেল তার পাঁচ বছরের চুক্তি। নিজেদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আনুষ্ঠানিকভাবে খবরটি নিশ্চিত করেছে পিএসজি।

নেইমারের দলবদলের নাটকের শেষটাও হল নাটকের মধ্য দিয়েই। প্রথমে লা লিগা কর্তৃপক্ষ বাই আউট ক্লজের অর্থ ফিরিয়ে দিলেন। পরে প্রতিনিধি পাঠিয়ে নেইমার নিজেই ২২২ মিলিয়ন ইউরো পরিশোধ করেছেন বলে জানায় বার্সেলোনা। তারপরেই ঘোষণা এল আনুষ্ঠানিকভাবে পিএসজিতে যোগ দিয়েছেন তিনি। এতে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর ট্রান্সফার রেকর্ড গড়েই পিএসজিতে নাম লেখালেন নেইমার। এর আগে ট্রান্সফার ফির রেকর্ড ছিল পল পগবার। গত বছরের আগস্টে তাকে ১০৫ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে জুভেন্টাস থেকে দলে ভেড়ায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

পিএসজিতে সাপ্তাহিক ৮ লাখ ৬৫ হাজার ইউরো হিসেবে প্রতি বছর করসহ সাড়ে চার কোটি ইউরো আয় করবেন নেইমার। সঙ্গে রয়েছে বিশাল অঙ্কের ওই ট্রান্সফার ফি। সবমিলিয়ে ২৫ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের পিছনে পিএসজির খরচ দাঁড়াবে ৪৫ কোটি ইউরো। ফ্রান্সে উড়ে এসে আনন্দিত নেইমার। তাতক্ষনিক এক প্রতিক্রিয়ায় নেইমার বলেন ‘পিএসজির উচ্চাকাঙ্ক্ষা ছিল, তারা আমাকে দলে টেনেছে। আমি চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। নতুন সতীর্থদের সাধ্যমত সাহায্য করব।’ ক্লাব পিএসজিও রোমাঞ্চিত, ‘নেইমার বিশ্বসেরা একজন ফুটবলার তাকে দলে ভেড়াতে পেরে আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। তার সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করি।’

নেইমার সান্তোস থেকে বার্সায় এসেছিলেন ২০১৩ সালে। কাতালানদের দলে নাম লিখিয়ে হয়ে ওঠেন অপরিহার্য সদস্য। মেসি-সুয়ারেজকে সঙ্গে নিয়ে গড়ে তুলেছিলেন বর্তমান ফুটবল বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী আক্রমণভাগ। চার বছর পর শেষ হল নেইমারের সেই বার্সা অধ্যায়। ন্যু ক্যাম্পে বার্সেলোনার হয়ে ১০৫টি গোল করেছেন নেইমার। এছাড়া কাতালান ক্লাবটির হয়ে দুটি লা লিগা, তিনটি কোপা ডেল রে ও একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগসহ মোট আটটি শিরোপা জেতেন।

২০১৫ সালের বর্ষসেরা ফুটবলার হওয়ার লড়াইয়ে লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পেছনে থেকে তৃতীয় হন ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ড। গত অক্টোবরে কাতালান ক্লাবটির হয়ে পাঁচ বছরের নতুন চুক্তিতেও এসেছিলেন। কিন্তু সব ছিন্ন করে আইফেল টাওয়ারের দেশে এখন পিএসজির খেলোয়াড় ব্রাজিলিয়ান ওয়ান্ডার বয়।

Post A Comment: