বিশ্বের প্রায় সব দেশেই ক্ষমতাধর ব্যক্তিদের তালিকা করা হয়। শুধু নিজ দেশের নয়, তালিকা করা হয় সমগ্র বিশ্বের ক্ষমতাধরদের নামও। টাইমস, হাফিংটন পোস্ট, ফোর্বসসহ বেশ কিছু পত্রিকা বিশ্বের রাজনীতি, অর্থনীতি, ক্রীড়াঙ্গন, মিডিয়া এবং শিক্ষা জগত থেকে জরিপ বা গবেষণার মাধ্যমে সবচেয়ে ক্ষমতাধরদের এ তালিকাগুলো করা হয়ে থাকে। আমাদের দেশেও বেশ কিছু বছর ধরে এর প্রচলন শুরু হয়েছে। সম্প্রতি একটি দৈনিক পত্রিকার জরিপে বাংলাদেশের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ১০০ জন ব্যক্তিদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে উঠে এসেছে রাজনৈতিক অঙ্গনের বেশ কয়েকজনের নাম-

 

বিশ্বের প্রায় সব দেশেই ক্ষমতাধর ব্যক্তিদের তালিকা করা হয়। শুধু নিজ দেশের নয়, তালিকা করা হয় সমগ্র বিশ্বের ক্ষমতাধরদের নামও। টাইমস, হাফিংটন পোস্ট, ফোর্বসসহ বেশ কিছু পত্রিকা বিশ্বের রাজনীতি, অর্থনীতি, ক্রীড়াঙ্গন, মিডিয়া এবং শিক্ষা জগত থেকে জরিপ বা গবেষণার মাধ্যমে সবচেয়ে ক্ষমতাধরদের এ তালিকাগুলো করা হয়ে থাকে। আমাদের দেশেও বেশ কিছু বছর ধরে এর প্রচলন শুরু হয়েছে। সম্প্রতি একটি দৈনিক পত্রিকার জরিপে বাংলাদেশের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ১০০ জন ব্যক্তিদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে উঠে এসেছে রাজনৈতিক অঙ্গনের বেশ কয়েকজনের নাম-

আবদুল হামিদ
বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ রয়েছেন দেশের সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাজনীতিবিদের একজন হিসেবে। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আবদুল হামিদ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পেশায় আইনজীবী আবদুল হামিদ তার নিজ এলাকা কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের ৭ বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। এছাড়াও তিনি জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা, ডেপুটি স্পিকার এবং বেশ কয়েক বছর সফলতার সঙ্গে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন।

শেখ হাসিনা
শুধু রাজনীতিবিদদের মধ্যেই নয়, নিঃসন্দেহে বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তিটির নাম শেখ হাসিনা। স্বাধীন বাংলাদেশের স্রষ্টা এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ট কন্যা শেখ হাসিনা ১০তম জাতীয় সংসদের সরকারদলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি বিভিন্ন আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, এছাড়াও ইডেন কলেজের ভিপি হিসেবে ছাত্রদের প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট পিতা শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পুরো পরিবার একদল বিপদগামী সেনাকর্মকর্তাদের হাতে নিহত হোন। পশ্চিম জার্মানিতে অবস্থানের ফলে তিনি এবং তার ছোট বোন শেখ রেহেনা বেঁচে যান সে যাত্রায় কিন্তু মৃত্যু পিছু ছাড়ে না, বারবার হামলা আসে তার উপরও। ২০০৪ সালে এক জনসভায় একটুর জন্য প্রাণে বেঁচে যান তিনি, তার দেহরক্ষীসহ নিহত হন আওয়ামীলীগের অজস্র নেতাকর্মী। ২০১০ সালে নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক জরিপ অনুযায়ী কেবল বাংলাদেশে নয় বিশ্বের দশজন ক্ষমতাধর নারীর মধ্যে শেখ হাসিনা অন্যতম।

বেগম খালেদা জিয়া
বাংলাদেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। স্বামী শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীদের আহবানে তিনি রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। ১৯৮৩ সাল থেকে স্বৈরশাষক এরশাদের বিরুদ্ধে তিনি প্রতিরোধ গড়ে তুলেন, বিভিন্ন আন্দোলনে রাজপথে সম্মুখ নেতৃত্ব দেন। তার আপোসহীন আন্দোলনের ফসল হিসেবে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সংসদ  ভেঙে দিয়ে পুনরায় নির্বাচন দিতে বাধ্য হোন।

হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ
সাবেক সেনাপ্রধান, সামরিক শাসক এবং রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ রয়েছেন ক্ষমতাধরদের এ তালিকায়। ১৯৮৩ সালে সেনা প্রধান থাকা অবস্থায় তিনি রাষ্ট্রক্ষমতা গ্রহণ করেন। ১৯৯০ সালে গণবিক্ষোভের চাপে এবং পরিস্থিতি সামাল দিতে সেন সমর্থন না পাওয়ায় ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হোন তিনি।

প্রফেসর এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী
সাবেক রাষ্ট্রপতি, উপ-প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী- রাষ্ট্রের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করা ব্যক্তি এ কিউ এম বদরুদ্দোজ্জা চৌধুরী। পিতা পাকিস্তান আমলের প্রখ্যাত আইনজীবী এবং তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদের মন্ত্রী কফিল উদ্দিন চৌধুরীর পদাঙ্ক অনুসরণ করে রাজনীতিতে নাম লেখান তিনি। অত্যন্ত মেধাবী চিকিৎসক বদরুদ্দোজ্জা চৌধুরী তার কর্মজীবন শুরু করেন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের সবচেয়ে নবীন প্রফেসর হিসেবে। ২০০২ সালে বেগম খালেদা জিয়া সরকারের রাষ্ট্রপতি থাকাকালীন এক বিতর্কিত ঘটনায় পদত্যাগ করতে বাধ্য হোন তিনি।

ড. কামাল হোসেন
বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেন বাংলাদেশের সংবিধান প্রণেতাদের মধ্যে অন্যতম। রাজনীতিতে সর্বদা সোচ্চার কামাল হোসেন ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর সরকারে আইনমন্ত্রী এবং ১৯৭৫ এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। গণতন্ত্রের প্রবক্তা হিসেবে তিনি সর্বত্র সমাদৃত।

নূরে আলম সিদ্দিকী
স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ছিলেন নূরে আলম সিদ্দিকী। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে তৎকালীন ছাত্রলীগের ভূমিকা অপরিসীম। কিন্তু দেশ স্বাধীনের ছয় মাসের মাথাতেই তৎকালীন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক শাজাহান সিরাজ এবং নূরে আলম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে ভাঙন ধরে। শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে বিরোধের জেরে শাজাহান সিরাজ অংশ বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রীপন্থী হিসেবে আত্মপ্রকাশ লাভ করলেও নূরে আলম সিদ্দিকী থেকে যান মুজিবপন্থী অংশেই।

কাদের সিদ্দিকী
কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম মুক্তিযুদ্ধের অসীম সাহসী এক যোদ্ধার নাম। কোনো রকম ট্রেনিং ছাড়া টাঙ্গাইলের নিজ এলাকায় তিনি গড়ে তুলেন কাদেরিয়া বাহিনী। হৃদয় বঙ্গবন্ধুকে ধারণ করে যাওয়া কাদের সিদ্দিকী ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধু নিহত হবার পর ভারতে চলে যান। ১৯৯০ সালে দেশে ফিরেও আওয়ামীলীগের সাথে যুক্ত ছিলেন তিনি। ১৯৯৯ সালে গড়ে তুলেন নিজের নতুন রাজনৈতিক দল কৃষক-শ্রমিক-জনতালীগ। তিনি বঙ্গবীর নামে অধিক পরিচিত।

বদরুদ্দীন উমর
বাংলাদেশে বাম বুদ্দিজীবীদের মধ্যে বদরুদ্দীন উমর অন্যতম। রাজনৈতিক সমালোচক বদরুদ্দীন উমর মূলত একজন মার্ক্সবাদী তাত্ত্বিক। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই শিক্ষকের হাত ধরেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সূচনা হয়। বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের অনেক বাঁক বদলের তিনি এক অগ্নি সাক্ষী।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী
বাংলাদেশের প্রথম নারী এবং সর্বকনিষ্ঠা স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। পেশা জীবনে তিনি বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের একজন তালিকাভুক্ত আইনজীবী তিনি। এর আগে তিনি মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন।

ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী
পেশায় চিকিৎসক সেলিনা হায়াৎ আইভী নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচিত মেয়র। রাজনৈতিক পরিবারের উত্তরসূরী আইভী নারায়ণগঞ্জের প্রথিতযশা রাজনীতিবিদ এবং সাবেক পৌর চেয়ারম্যান আলী আহাম্মদ চুনকার কন্যা। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির পদে আছেন।

আ জ ম নাছির
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বর্তমান মেয়র আবু জাফর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, তিনি আ জ ম নাছির উদ্দিন নামেই সর্বাধিক পরিচিত। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সহ-সভাপতি পদেও নিযুক্ত আছেন তিনি। শিক্ষা জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত আ জ ম নাছির, উনসত্তরের গণ অভ্যুত্থানের মিছিলেও অংশগ্রহণ করেন, তবে রাজনীতিতে তার সক্রিয় প্রবেশ আশির দশকের শুরুর দিকে। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে নিযুক্ত আছেন।

বদর উদ্দিন কামরান
সিলেটের প্রথম নির্বাচিত মেয়র বদর উদ্দিন কামরান। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত বদর উদ্দিন কামরান বর্তমানে সিলেট শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি।

তারেক রহমান
বাংলাদেশের তরুণ রাজনীতি অঙ্গনে তারেক রহমান একটি আলোচিত নাম। বাবা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং মা সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ পুত্র তিনি। দূর্নীতির অভিযোগে ফখরুদ্দীন আহমেদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তাকে গ্রেফতার করে বিচারের সম্মুখীন করা হয়। বর্তমানে লন্ডনে বসবসরত তারেক রহমান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)’র সিনিয়র সহ-সভাপতি।

সজীব ওয়াজেদ জয়
বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়। তার নানা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বাবা খ্যাতিমান পরমাণু বিজ্ঞানী এম এ ওয়াজেদ মিয়া। কম্পিউটার বিজ্ঞানে উচ্চতর ডিগ্রীধারী জয় স্থায়ীভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় বাস করেন।

রুশনারা আলী
ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত বাংলাদেশী রুশনারা আলী ব্রিটিশ লেবার পার্টির একজন রাজনীতিবিদ। ২০১০ সালে সাংসদ নির্বাচিত হওয়া রুশনাড়া আলী ২০১৪ সালে লেবার পার্টি থেকে পদত্যাগ করেন।

টিউলিপ সিদ্দিক
টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিকি বাংলাদেশ বংশোদ্ভূত একজন বৃটিশ নাগরিক। ২০১৫ সালে তিনি লন্ডনের হ্যামস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হোন। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠা কন্যা শেখ রেহানার একমাত্র  কন্যা।

আন্দালিব রহমান পার্থ
পেশাগত জীবনে আইনের শিক্ষক আন্দালিব রহমান পার্থ বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (নাজিউর রহমান মঞ্জু)’র বর্তমান সভাপতি। তিনি জাতীয় সংসদের একজন সাবেক সংসদ সদস্য।

Post A Comment: