আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে ভিন্ন দৃষ্টি নিয়ে বিচারকাজ চলছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ৫ আগস্ট শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান হলেও বিএনপি চেয়ারপারসনের ক্ষেত্রে ভিন্ন দৃষ্টি নিয়ে বিচারকাজ চলছে। আইনের তোয়াক্কা না করে দুদক সরকারি দলের নেতাকর্মীদের মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

 

আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে ভিন্ন দৃষ্টি নিয়ে বিচারকাজ চলছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ৫ আগস্ট শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান হলেও বিএনপি চেয়ারপারসনের ক্ষেত্রে ভিন্ন দৃষ্টি নিয়ে বিচারকাজ চলছে। আইনের তোয়াক্কা না করে দুদক সরকারি দলের নেতাকর্মীদের মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

সরকারের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কাজ করছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমাদের কাছে মনে হয়েছে তার (দুদক চেয়ারম্যান) এই বক্তব্য হচ্ছে সরকারের বক্তব্য। সরকারের রাজনৈতিক এজেন্ডাগুলো বাস্তবায়ন করার জন্যই কাজ করছেন। আমরা ইতিপূর্বে দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যানকে এ ধরনের কোনো বক্তব্য রাখতে শুনিনি। দুর্নীতি দমন কমিশনের এই বক্তব্যকে আমরা বিচার প্রক্রিয়াকে, বিশেষ করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিচার প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করার শামিল বলে মনে করি।’

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, দুদকের প্রায় সব আইনজীবী আওয়ামী লীগ সমর্থক। এটা প্রমাণ করে যে দুদক পক্ষপাতদুষ্ট ভূমিকা পালন করছে। এ সময় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুদকে চলমান মামলাগুলোতে ন্যায়বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ জজ আদালতে বিচারাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুদকের করা জিয়া অরফানেজ ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় তার পক্ষের আইনজীবীরা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছেন বলে মন্তব্য করেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। ওই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাতেই শনিবারের সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

Post A Comment: