ফরিদপুরের তিনটি উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের দেড় শতাধিক গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে ফরিদপুর সদর, চরভদ্রাসন ও সদরপুর উপজেলা রয়েছে।
Various-people-and-organizations-beside-Banvasidha-in-Faridpur 

ফরিদপুরের তিনটি উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের দেড় শতাধিক গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে ফরিদপুর সদর, চরভদ্রাসন ও সদরপুর উপজেলা রয়েছে।


এসব বানভাসি মানুষের জন্য সরকারি সহায়তার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে।

সোমবার দুপুরে ফরিদপুর ওয়েস্টার্ন মেডিকেল ইনস্টিটিউট অ্যান্ড ম্যাটসের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা খাদ্যসামগ্রী নিয়ে ফরিদপুর সদর উপজেলার নর্থচ্যানেল ইউনিয়নের গোলডাঙ্গী এলাকায় বিতরণ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মাহমুদুল হাসান, উজ্জল গোলদার, লিপি মন্ড, শিরিন জাহান প্রমুখ।

এছাড়াও প্রতিদিনই জেলার বন্যাদুর্গদের মাঝে সরকারি সহায়তা নিয়ে প্রতিদিনই বিভিন্ন ইউনিয়নে ছুটে যাচ্ছে।

ফরিদপুর জেলার ত্রাণ কর্মকর্তা সাইদুর রহমান জানান, জেলার পানিবন্দি ও নদী ভাঙন কবলিত মানুষের জন্য ১৮০ মেট্রিকটন চাল ও পাঁচ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আমার প্রতিদিনই বন্যার্তদের জন্য সরকারি সহায়তা অব্যাহত রেখেছি।

এদিকে কমতে শুরু করেছে পদ্মার পানি। গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মার পানি গোয়ালন্দ পয়েন্টে আট সেন্টিমিটার কমে এখন বিপদসীমার ৮৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

Post A Comment: