গাইবান্ধার ফুলছড়ির উপজেলার দুর্গম চরে ডাকাতের হামলায় দুলাল মিয়া নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। পরে গণপিটুনিতে মারা গেছেন একজন। তিনি ডাকাত দলের সদস্য বলে সন্দেহ করছেন চরের বাসিন্দারা। এছাড়া ডাকাতের গুলিতে আহত হয়েছেন বাবুল নামে আরও এক কৃষক।
Farmer-in-the-attack-robber-killed-in-mass-robbery 

গাইবান্ধার ফুলছড়ির উপজেলার দুর্গম চরে ডাকাতের হামলায় দুলাল মিয়া নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। পরে গণপিটুনিতে মারা গেছেন একজন। তিনি ডাকাত দলের সদস্য বলে সন্দেহ করছেন চরের বাসিন্দারা। এছাড়া ডাকাতের গুলিতে আহত হয়েছেন বাবুল নামে আরও এক কৃষক।


বুধবার ভোরে ফুলছড়ি উপজেলার ফজলপুর ইউনিয়নের চর চৌমহনে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত দুলাল ফুলছড়ি উপজেলার ফজলপুর ইউনিয়নের চর চৌমহন গ্রামের বাসিন্দা। আহত বাবুল মিয়াও একই গ্রামের বাসিন্দা।

ফজলুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন জালাল জানান, ভোরে নৌকায় করে ২০-২৫ জন ডাকাত চর চৌমহনের জাহাঙ্গীর, ময়নুল ও হযরতের বাড়িতে হানা দেয়। ডাকাতরা গোয়াল ঘর থেকে গরু লুটের চেষ্টা করে। চরের লোকজন টের পেয়ে ডাকাতদের ধরার চেষ্টা করলে ডাকাতরা তাদের লক্ষ্য করে হামলা চালায় এবং গুলি করে। ডাকাতের অস্ত্রের আঘাতে ঘটনাস্থলেই দুলাল মিয়া নিহত হয়। আহত হয় বাবলু মিয়া।

এক পর্যায়ে ডাকাতরা পালিয়ে পাশের একটি চরে আশ্রয় নেয়। পরে চরের লোকজন এক হয়ে ডাকাতদের ঘিরে ফেলে এবং এক ডাকাতকে পিটিয়ে হত্যা করে। আহত বাবুলকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু হায়দার মো. আশরাফুজ্জামান। তিনি বলেন, তিনি ঘটনাস্থলে আছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Post A Comment: