প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে সবাই। তাই আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।
 

প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে সবাই। তাই আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।


সঙ্গে নাগরিক জীবনের নিরাপত্তা বিধান, ঈদের অনাবিল আনন্দ এবং শান্তি অটুট রাখতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো মেনে চলার জন্য অনুরোধ করেছে।

১. কোরবানির হাটে পশু ক্রয়-বিক্রয়ের সময় অর্থ লেনদেনে সর্তক থাকুন। প্রয়োজনে পুলিশের সহায়তা নিন।

২. পশু ক্রয়-বিক্রয়ের সময় বড় অংকের টাকা লেনদেন হয় বিধায় কিছু অসৎ ব্যবসায়ী জাল টাকার নোট বান্ডিলে দিয়ে দিতে পারে। জাল নোট সংক্রান্তে সন্দেহ দেখা দিলে পুলিশের সহায়তা নিন।

৩. দৃষ্টিগোচর হয় এমন স্থানে হাসিল সংক্রান্ত মূল্য তালিকা ঝুলিয়ে রাখুন।

৪. কোরবানির পশুর হাসিল পরিশোধ করুন এবং হাসিল পরিশোধের রসিদ সঙ্গে রাখুন।

৫. কোরবানির পশু বহনকারী ট্রাকে অথবা অন্য কোনো পরিবহনে কেউ চাঁদা দাবি করলে নিকটস্থ থানা বা পুলিশ কন্ট্রোল রুমে জানান।

৬. যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণে ঢাকা সিটি করপোরেশন কর্তৃক ইজারা দেওয়া স্থানে শুধুমাত্র পশুর হাট বসবে এবং তার বাহিরে কোথাও পশুর হাট বসবে না।

৭. হাটের জন্য নির্ধারিত চৌহদ্দির বাইরে পশুর হাট বিস্তৃত করা যাবে না।

৮. গরুর বেপারীরা নির্ধারিত সময়ে পূর্বে গরু নিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করবেন না।

৯. ক্রয়কৃত পশু বহনকারীর পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হোন। প্রয়োজনে তার ফোন নম্বর রাখুন।
১০. কোরবানি একটি ধর্মীয় অনুশাসন এবং পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ। কোরবানির পরে আমাদের পরিবেশ যাতে দূষিত না হয় এবং কেরবানির পবিত্রতা নষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। সুন্দর পরিবশ রক্ষা করে ধর্মীয় দায়িত্ব পালন করুন।

১১. পশু জবাইয়ের পূর্বে গর্ত করে নিন। গর্তের মধ্যে রক্ত, গোবর ও পরিত্যক্ত অংশ পুঁতে রাখুন। জবাইকৃত পশুর উচ্ছিষ্টাংশ নিকটতম ডাস্টবিনে ফেলুন।

১২. জবাইকৃত পশুর রক্ত ও অপ্রয়োজনীয় অংশ নর্দমা কিংবা যেখানে-সেখানে ফেলবেন না। এতে পরিবশ দূষিত হয়, মশা-মাছির বংশ বৃদ্ধি পায় এবং মারাত্নক রোগ ছড়ায়।

১৩. কোরবানিকৃত পশুর বর্জ্য দ্রুত অপসারণের জন্য প্রয়োজনে নিকটস্থ সিটি করপোরেশনকে সংবাদ দিন।

১৪. কোরবানির বর্জ্য অপসারণ বা কোরবানির গোস্ত বিতরণে পরিবেশবান্ধব ব্যাগ/পাত্র ব্যবহার করুন।

১৫. ঈদগাহে যাওয়ার সময় নগদ অর্থ বহন পরিহার করুন। মোবাইল ফোন বহন করার ক্ষেত্রে সর্তক থাকুন।

১৬. গরু বিক্রেতাদের নগদ অর্থ পরিবহনের পরিবর্তে পশুর হাটে বা সন্নিকটে অবস্থিত ব্যাংকে জমা দিন/প্রয়োজনে পুলিশের সহায়তা নিন।

১৭. ঢাকায় আগত পশুবাহী যানবাহনের সামনে ব্যানারে গন্তব্যের/হাটের নাম বড় করে লিখে রাখুন।

Post A Comment: