বিভিন্ন কারণে নিবন্ধন করেও এবছর ৩৬৭ জন হজযাত্রী হজে যেতে পারেনি বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।
 367-can-not-go-hajj-this-year

বিভিন্ন কারণে নিবন্ধন করেও এবছর ৩৬৭ জন হজযাত্রী হজে যেতে পারেনি বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।


মঙ্গলবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব হাফিজুর রহমান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ৩৬৭ জনের মধ্যে ৯৮ জন ১৮টি এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন।

এসব অভিযোগ তদন্ত করার কথা জানিয়ে হাফিজুর রহমান বলেন, এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তদন্ত করে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই যুগ্মসচিব বলেন, ‘যারা এবছর হজে যেতে পারেননি তাদেরকে আগামী বছর অগ্রাধিকার দিয়ে হজে পাঠানো হবে। এ পর্যন্ত এ বছর হজে গেছে এক লাখ ২৭ হাজার ২২৯ জন।’

এদিকে এ বছর হজ কার্যক্রমে চরম অব্যবস্থাপনার জন্য সরকারকে দায়ী করেছে বেসরকারি এজেন্সি মালিকদের সংগঠন হাব। প্রাক-নিবন্ধন থেকে শুরু করে প্রতিটি পদে অনিয়ম আর অব্যবস্থাপনা দেখা দিয়েছে। একের পর এক ফ্লাইট বাতিলে চলতি বছর হজের শিডিউল বিপর্যয় ঘটে। এরমধ্যে গত ১০ আগস্ট বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলেমদের এক কর্মশালায় ধর্মমন্ত্রী ঘোষণা দেন, একজন হজযাত্রীকে বাকি রেখেও তিনি হজে যাবেন না। কিন্তু এরপরও ফ্লাইট বিপর্যয় অব্যাহত থাকে। সর্বশেষ ভিসা থাকার পরও এজেন্সির প্রতারণায় বিমানের টিকেট না থাকায় হজে যাওয়া নিয়ে অনিশ্চতায় থাকা হজযাত্রীরা গত শনিবার দুপুরে আশকোনা হজ ক্যাম্পে বিক্ষোভ করেন। শেষমেষ ৩৬৭ জন এ বছর হজে যেতে পারছেন না।

Post A Comment: