ভিসা জটিলতায় যাত্রী সংকটের কারণে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এয়ারলাইন্স মোট ১৫টি হজ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২টি বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের আর বাকি ৩টি সৌদি এয়ারলাইন্সের। বুধবার দুপুরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ পরিবর্তন ডটকমেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
15-hajj-flights-canceled-due-to-visa-complications

    ভিসা জটিলতায় যাত্রী সংকটের কারণে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এয়ারলাইন্স মোট ১৫টি হজ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২টি বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের আর বাকি ৩টি সৌদি এয়ারলাইন্সের। বুধবার দুপুরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ পরিবর্তন ডটকমেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


শাকিল মেরাজ বলেন, ‘ভিসা জটিলতায় যাত্রী সংকটের কারণে বাংলাদেশ ও সৌদি বিমানের হজ ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত মোট ১৫টি ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়াও সৌদি এয়ারলাইন্সের অনেক বিমান কম যাত্রী নিয়েই রওনা হচ্ছে।’

বিমান বাংলাদেশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোর ৩টা ২৫ মিনিটের (বিজি-৫০৩৩) ফ্লাইটটি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

পহেলা আগস্ট মঙ্গলবার রাত ১টা ২৫ মিনিটের (বিজি- ১০৩১), ভোর ৪টা ৫৫ মিনিটের (বিজি-৩০৩১), সকাল ৮টা ৫৫ মিনিটের (বিজি-৫০৩১), রাত ১১টা ৪৫ মিনিটের (বিজি-৩০৩৩), রাত ১২টা ৫৫ মিনিটের (বিজি- ৭০৩১) এই ফ্লাইট চারটি বাতিল ঘোষণা করা হয়।

৩১ জুলাই সোমবার সকাল ১০টা ২৫ মিনিটের (বিজি- ৩০২৯) হজ ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

৩০ জুলাই রোববার দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটের (বিজি- ১০২৭), রাত ১১টা ৫৫ মিনিটের (বিজি- ৫০২৭) হজ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

২৯ জুলাই শরিবার সকাল ৬টা ৫৫ মিনিটের (বিজি- ৫০২৩), বিকেল ৫টা ৫৫ মিনিটের (বিজি- ১০২৫) হজ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

গত ২৬ জুলাই বুধবার রাত ১১টা ২৫ মিনিটের (বিজি- ৫০১৭) হজ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং সৌদি এয়ারলাইন্সের দুটি হজ ফ্লাইট কম যাত্রী নিয়ে জেদ্দার উদ্দেশে রওনা দেয়।

প্রসঙ্গত, এ বছর সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মোট হজযাত্রীর সংখ্যা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাত্রার প্রথম ফ্লাইট পৌঁছে ২৪ জুলাই। শেষ ফ্লাইট ২৮ আগস্ট। ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে ৬ সেপ্টেম্বর ও শেষ ফিরতি ফ্লাইট ৫ অক্টোবর। এ বছর চাঁদ দেখা সাপেক্ষে হজ অনুষ্ঠিত হবে ১ সেপ্টেম্বর।

Post A Comment: