বনানীতে আলোচিত টিভি অভিনেত্রী ধর্ষণ মামলা প্রত্যাহারে তিনটি শর্ত দিয়েছেন মামলার বাদী। ৯ জুলাই রোববার বারিধারা ডিওএইচএসের একটি বাসায় বসে দৈনিক যুগান্তর-কে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় এসব শর্তের কথা জানান ওই তরুণী।



বনানীতে আলোচিত টিভি অভিনেত্রী ধর্ষণ মামলা প্রত্যাহারে তিনটি শর্ত দিয়েছেন মামলার বাদী। ৯ জুলাই রোববার বারিধারা ডিওএইচএসের একটি বাসায় বসে দৈনিক যুগান্তর-কে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় এসব শর্তের কথা জানান ওই তরুণী।

সোমবার যুগান্তরে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, শনিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রিমান্ডে থাকা ইভানকে ওই তরুণীর মুখোমুখি করেন। সেসময় তারা পরস্পর মারমুখী হয়ে ওঠেন বলেও জানা যায়।

মামলা প্রত্যাহারে ওই তরুণীর দেওয়া তিনটি শর্তের মধ্যে প্রথমটি হলো ধর্ষণের সময় ধারণ করা ভিডিও ক্লিপগুলো ফেরত দেওয়া ছাড়াও নিশ্চিত করতে হবে ওগুলো আর কারও কাছে সংরক্ষিত নেই। 

দ্বিতীয়টি হলো বিভিন্ন সময়ে ওই তরুণীর কাছ থেকে ইভানের নেওয়া দুই লাখ টাকা ফেরত দিতে হবে। আর তৃতীয় শর্তটি হলো আর কখনোই ইভান ওই তরুণীকে বিরক্ত করবে না তা লিখিতভাবে নিশ্চিত করতে হবে।

ওই তরুণী যুগান্তরের কাছে দাবি করেছেন, ‘আমি মামলা করতে চাইনি। পুলিশকে বলেছিলাম, ইভানের কাছ থেকে ধর্ষণের ভিডিও, মোবাইল সেট, মোমোরি কার্ড এবং ব্যাগটি উদ্ধার করে দিলেই চলবে।’ অতীতের ধর্ষণের ভিডিওগুলো তার নিজের মোমোরি কার্ডেও ছিল বলে স্বীকার করেন তরুণী।

প্রসঙ্গত, গেল বুধবার ধর্ষণের অভিযোগে ব্যবসায়ীপুত্র ইভানের বিরুদ্ধে বনানী থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন ওই তরুণী। অভিযোগে বলা হয়, জন্মদিনের কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে মঙ্গলবার রাতে তাকে ধর্ষণ করেন ইভান। অভিযোগ দয়েরের পরদিন নারায়ণগঞ্জে এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় ইভানকে। শুক্রবার আদালতে তোলা হলে তাকে চারদিনের রিমান্ডে পাঠানো হয় তাকে। বর্তমানে রিমান্ডে রয়েছেন অভিযুক্ত ইভান।

Post A Comment: