মিষ্টি নামটি শুনলে চোখের সামনে ভেসে উঠে সাদা সাদা গোল গোল রসে টুইটুম্বর রসগোল্লা। একটা সময় ছিল যখন মিষ্টি বলতে রসগোল্লাকে বুঝানো হতো। নরম তুলতুলে রসে ভরপুর এই মিষ্টিটি এখন আর দোকান থেকে কিনে খেতে হবে না। আপনি চাইলেই ঘরে তৈরি করে নিতে পারবেন। কীভাবে? দেখে নিন ছোট ভিডিওটি আর জেনে নিন রসগোল্লা তৈরির সম্পূর্ণ প্রণালীটি।



মিষ্টি নামটি শুনলে চোখের সামনে ভেসে উঠে সাদা সাদা গোল গোল রসে টুইটুম্বর রসগোল্লা। একটা সময় ছিল যখন মিষ্টি বলতে রসগোল্লাকে বুঝানো হতো। নরম তুলতুলে রসে ভরপুর এই মিষ্টিটি এখন আর দোকান থেকে কিনে খেতে হবে না। আপনি চাইলেই ঘরে তৈরি করে নিতে পারবেন। কীভাবে? দেখে নিন ছোট ভিডিওটি আর জেনে নিন রসগোল্লা তৈরির সম্পূর্ণ প্রণালীটি।

উপকরণ:
১ লিটার দুধ
২ কাপ চিনি
২-৩ টেবিল চামচ লেবুর রস

প্রণালী:
প্রথমে চুলায় দুধ গরম করতে দিন। গরম করার সময় বার বার নাড়তে থাকুন যাতে হাঁড়ির তলায় দুধ লেগে না যায়। ছানা তৈরির জন্য লেবুর রসের সাথে দুই টেবিল চামচ পানি মিশিয়ে সেটি দুধে দিয়ে দিন। দুধ ফেটে ছানা হয়ে গেলে একটি পাতলা সুতির কাপড়ে পানি ঢেলে ছেঁকে ছানা আলাদা করে ফেলুন। এবার ঠান্ডা পানি দিয়ে ছানা ধুয়ে ফেলুন। এতে ছানা নরম হবে এবং লেবুতে থাকা ময়লাও দূর হয়ে যাবে। ছানা থেকে ভাল করে পানি বের করে নিন। আরও ভাল করে পানি বের করার জন্য ৩০ মিনিট কাপড়টি পেঁচিয়ে ঝুলিয়ে রাখুন। লক্ষ্য রাখবেন ছানা যেন খুব বেশি ড্রাই না হয়ে যায়। আরেকটি পাত্রে ১০ কাপ পানিতে দুই কাপ চিনি দিয়ে সিরা তৈরি করে নিন। ছানা কাপড় থেকে বের করে নিয়ে ভাল করে মথে নিন। লক্ষ্য রাখবেন ছানাতে যেন পানি না থাকে আবার খুব বেশি ড্রাইও যেন না হয়ে যায়। এবার ছানাগুলো দিয়ে ছোট ছোট রসগোল্লা তৈরি করে নিন। চিনির সিরা বলক এলে এতে রসগোল্লাগুলো দিয়ে দিন। চিনির সিরা প্রেসারে কুকারে করলে উচ্চ তাপে ১৫ মিনিট সময় ঠিক করে নিন। ৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে নাড়া দিন। তারপর আবার ঢাকনা দিয়ে দিন। ১৫ মিনিট পর রসগোল্লাগুলো রসসহ একটি পাত্রে ঢেলে দিন।  এভাবে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা রেখে দিন। ৬ থেকে ৭ ঘন্টা পর পেয়ে যাবেন দোকানের মতো পারফেক্ট রসগোল্লা।

 

Post A Comment: