বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডন সফরকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘মিথ্যাচার’ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘ভয় পেয়ে পালিয়ে যাওয়া আওয়ামী লীগের চরিত্র, খালেদা জিয়ার নয়।’


বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডন সফরকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘মিথ্যাচার’ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘ভয় পেয়ে পালিয়ে যাওয়া আওয়ামী লীগের চরিত্র, খালেদা জিয়ার নয়।’

১৮ জুলাই মঙ্গলবার ‘ঢাকাস্থ নরসিংদীবাসী’ সংগঠনের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘কত কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী। বেগম খালেদা জিয়া নাকি মামলার ভয়ে দেশ ছেড়ে চলে গেছেন। হয়! সেই প্রতিধ্বনি করছেন তার সাধারণ সম্পাদকও। লজ্জা করে না আপনাদের? মিথ্যা কথার ঝুলি এমন সাজিয়ে গুছিয়ে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সবাই মিথ্যা কথা বলবেন, এই মিথ্যা কথার কম্পিটিশনে শেখ হাসিনা চ্যাম্পিয়ন-এটা নিঃসন্দেহে বলা যেতে পারে।’

রিজভী বলেন, ‘আমি বলে রাখতে চাই, আওয়ামী লীগের নেত্রীর উদ্দেশে, ভোটারবিহীন আওয়ামী সরকারের উদ্দেশে, ওটা আপনাদের চরিত্র পালিয়ে যাওয়া, ভয় পাওয়া। বেগম খালেদা জিয়ার বৈশিষ্ট্য তা নয়।’

লন্ডনে চিকিৎসা শেষে বিএনপি নেত্রী দেশে ফিরে ‘জনগণের পক্ষে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের’ আন্দোলন করবেন বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘সেই ওয়ান-ইলেভেনের কুশীলবরা মাইনাস টু তত্ত্ব দিলেন, সেই তত্ত্ব অনুযায়ী শেখ হাসিনা চলে গেলেন তার ছেলের কাছে, আর ফিরবেন না- সবাই জানে। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়াকে তার মাটি, মানুষ ও তার জনগণের কাছ থেকে বিন্দুমাত্র টলাতে পারেনি, তিনি যাননি।’

প্রসঙ্গত, সেনা নিয়ন্ত্রিত সরকারের সময় ২০০৭ সালে অন্তঃস্বত্ত্বা মেয়ে ও পুত্রবধুকে দেখতে যুক্তরাষ্ট্রে যান শেখ হাসিনা। 

সেই প্রসঙ্গ টেনে রিজভী আরও বলেন, ‘তাই শেখ হাসিনার গোস্বা মঈনুদ্দিন-ফখরুদ্দিনের প্রতি। আপনারা খালেদা জিয়াকে সরাতে পারলেন না, তাহলে তো হবে না। উনি আবার ফিরে আসলেন। ফিরে এসে কী বললেন, তাদেরই আন্দোলনের ফসল হচ্ছে মইনউদ্দিন-ফখরুদ্দিন। অর্থাৎ আপস করা, ভয় পেয়ে পালিয়ে যাওয়া এবং অনাচারকারীদের কাছে আত্মসমর্পণ করা এটা আওয়ামী লীগের চরিত্র, এটা আওয়ামী লীগের নেতারাই করতে পারে।’

Post A Comment: