রাজধানীর পল্টন থানার নাশকতার মামলায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন আত্মসমর্পন করে আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করেন।
আত্মসমর্পণ করে জামিন নিলেন জয়নুল আবেদিন

    রাজধানীর পল্টন থানার নাশকতার মামলায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন আত্মসমর্পন করে আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত  শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করেন।


এর আগে বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে এ পরোয়ানা জারি করেন। একইসঙ্গে বিচারক আগামী ২৮ আগস্ট  গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য করেন।

পরোয়ানা জারি হওয়া অপর আসামিদের মধ্যে রয়েছেন, বিএনপির  সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বিএনপি নেত্রী সৈয়দা আশিফা আশরাফি পাপিয়া, শিরিন সুলতানা, মারুফ কামাল খান সোহেল, মীর সরাফত আলী সফু, সাইফুল ইসলাম নীরব প্রমুখ।

মামলায় মোট আসামি ৫৩ জন। এদের মধ্যে রুহুল কবীর রিজভী, এম কে আনোয়ার, হাবিবুন নবী খান সোহেল, শওকত মাহমুদসহ ১২জন জামিনে রয়েছেন। আর বরকত উল্লাহ বুলু ও মনির হোসেন এ দুইজন কারাগারে রয়েছেন।

জানা গেছে, ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি বিএনপির ডাকা হরতাল-অবরোধ চলাকালে পল্টন থানা এলাকায় আসামিরা সিএনজচালিত অটোরিকশায় পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করেন। এতে কয়েকজন আহত হন। ওই ঘটনায় পল্টন থানার এসআই জিয়াউল হক বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

পল্টন থানার এসআই দেবী কান্ত বর্মণ মামলাটি তদন্ত করে ২০১৭ সালের ২৭ এপ্রিল আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

Post A Comment: