গত দেড় বছর ধরে দরিদ্র পরিবারের এক কিশোরী ও তার ২৩ বছর বয়সী বোনকে ধর্ষণ করে আসছে ৭২ বছর বয়সী এক পুরোহিত। গ্রাম্য সালিশে পুরোহিতের জরিমানা করা হয়। তবে জরিমানার কিছু টাকা পাবে গ্রাম কমিটিও।
দুই বোনকে পুরোহিতের ধর্ষণ, জরিমানা পাবে গ্রাম কমিটিও

    গত দেড় বছর ধরে দরিদ্র পরিবারের এক কিশোরী ও তার ২৩ বছর বয়সী বোনকে ধর্ষণ করে আসছে ৭২ বছর বয়সী এক পুরোহিত। গ্রাম্য সালিশে পুরোহিতের জরিমানা করা হয়। তবে জরিমানার কিছু টাকা পাবে গ্রাম কমিটিও।


ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথির মারিশদা থানার একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর: আনন্দবাজার।

জানা গেছে, ধর্ষণের ফলে ১৭ বছরের কিশোরী ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ঘটনা জানাজানি হয়। পুলিশে অভিযোগ না জানিয়ে বৃহস্পতিবার সালিশি বৈঠকে বসে গ্রাম কমিটি। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছলেও পরে ফিরে যায় পুলিশ।

সালিশের পক্ষে সাফাই গেয়ে সভার অন্যতম উদ্যোক্তা গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য বৈশাখী প্রধানের স্বামী মাখনলাল প্রধান বলেন, ‘পুলিশে গেলেই যে অভিযুক্ত শাস্তি পাবে এমন নয়। বরং মেয়েগুলোর পরিবারের তুলনায় অভিযুক্ত অনেক বেশি ক্ষমতাশালী। ফলে সে ছাড় পেয়ে যেত।’

সালিশে অভিযুক্ত পুরোহিতকে দুই লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। দুই বোনকে এক লাখ টাকা করে দেওয়া হবে। আর ১৫ হাজার টাকা খরচ হবে অন্তঃসত্ত্বার চিকিৎসায়। বাকি ৫ হাজার টাকা ‘গ্রামের সম্মান নষ্ট’ হওয়ায় গ্রাম কমিটি পাবে।

জরিমানা দিতে হবে ধর্ষিতাদের বাবাকেও। তার ‘অপরাধ’ মেয়েদের আগলে রাখতে না পারা।

মেয়ে দুটির বাবা অসুস্থ। নয় মাস আগে মৃত্যু হয়েছে মায়ের। কিশোরীর দাবি, পেশায় পুরোহিত ওই বৃদ্ধ গত দু’বছরে তাদের পরিবারের অভিভাবক হয়ে ওঠে। সম্প্রতি কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়ায় এক পড়শি চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। তখনই জানা যায় সে অন্তঃসত্ত্বা।

কিশোরীর অভিযোগ, ওই বৃদ্ধ তাকে ও তার বোনকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। বিষয়টি কেউ যাতে না জানে সঙ্গে সে হুমকিও দিয়েছে। ভয়ে এতদিন চুপ ছিল তারা। এ দিন সালিশি সভায় ভ্রূণ নষ্ট করারও অনুমতি চেয়েছে কিশোরী।

থানায় অভিযোগ না করার বিষয়ে দুই ধর্ষিতার বাবা বলেন, ‘আমাকে গ্রামের লোককে নিয়েই বাঁচতে হবে।’

অভিযোগ দায়ের না হওয়ায় পদক্ষেপ নিতে পারছে না বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে এসডিপিও পার্থ ঘোষ বলেছেন, ‘নির্যাতিতার পরিবারের কাছে অভিযোগ চাওয়া হয়েছে। অভিযোগ পেলেই মামলা হবে।’

Post A Comment: