বগুড়ায় কেন্দ্রীয় জাসদ নেতার ছেলে স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌস (১৬) হত্যাকাণ্ডের দায়েরকৃত মামলা তদন্তের জন্য সিআইডিতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শ্যাম সুন্দর রায় এ নির্দেশ দেন।
স্কুলছাত্র মাসুক হত্যা: মামলা সিআইডিতে পাঠানোর নির্দেশ

    বগুড়ায় কেন্দ্রীয় জাসদ নেতার ছেলে স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌস (১৬) হত্যাকাণ্ডের দায়েরকৃত মামলা তদন্তের জন্য সিআইডিতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শ্যাম সুন্দর রায় এ নির্দেশ দেন।




এ হত্যাকাণ্ডের ৭২ ঘণ্টা পর নিহত স্কুলছাত্রের বাবা জাসদ নেতা এড. ইমদাদুল হক ইমদাদ বাদী হয়ে জাতীয় টেস্ট ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের বাবা মাহবুব হামিদ তারা ও মুশফিকের চাচাসহ ১৬ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌসকে হত্যাকাণ্ডে দায়েরকৃত মামলায় অভিযুক্ত নাইম নামের এক কিশোরকে গত ১৭ মে রাতে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছিল পুলিশ। গ্রেফতার নাইম স্কুলছাত্র মাসুক হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে। আদালতে নাইমের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, নাইমের জবানবন্দি দেওয়ার পর থেকে স্কুলছাত্রের বাবা ইমদাদুল হক ইমদাদ মামলাটি সিআইডিতে পাঠানোর অনুরোধ করে আসছিলেন। নিহতের বাবার আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২০ জুলাই বিকেলে বগুড়া অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শ্যাম সুন্দর রায় মাসুক হত্যা মামলাটি সিআইডিতি পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ হত্যা মামলার অন্যান্য অভিযুক্তরা উচ্চ আদালতের দেয়া দ্বিতীয় দফা জামিনে রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ মে শনিবার সন্ধ্যা রাতে দিকে শহরের মাটিডালী হাজীপাড়া এলাকায় নিজ বাসা থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌসকে ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে আঘাত করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। নিহত মাসুক ওই এলাকার এড. এমদাদুল হক ইমদাদের পুত্র ও স্থানীয় এসওএস হারম্যান মেইনার স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র। এ হত্যাকাণ্ডে ১৬ মে নিহতের বাবা ইমদাদুল হক ইমদাদ বাদী হয়ে মুশফিকুর রহিমের বাবা মাহবুব হামিদ তারা-চাচাসহ ১৬ জন অভিযুক্ত করে বগুড়া সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

Post A Comment: