রাজশাহীর তানোরে একটি বাড়ির রান্নাঘরে এবার পাওয়া গেল ১২৫টি গোখরা সাপের বাচ্চা। তানোর পৌর এলাকার ভদ্রখণ্ড মহল্লার কৃষক আক্কাছ আলীর রান্নাঘর থেকে বৃহস্পতিবার রাতে একে একে সবগুলো সাপ মেরে ফেলা হয়।
এবার রান্নাঘরে ১২৫ গোখরা

    রাজশাহীর তানোরে একটি বাড়ির রান্নাঘরে এবার পাওয়া গেল ১২৫টি গোখরা সাপের বাচ্চা। তানোর পৌর এলাকার ভদ্রখণ্ড মহল্লার কৃষক আক্কাছ আলীর রান্নাঘর থেকে বৃহস্পতিবার রাতে একে একে সবগুলো সাপ মেরে ফেলা হয়।


আক্কাছ আলী জানান, সন্ধ্যার পর তার স্ত্রী হাসনা বিবি রান্নাঘরে গিয়েছিলেন রান্না করতে। এ সময় তিনি ঘরের মেঝেতে তিনটি গোখরা সাপের বাচ্চা দেখে চিৎকার দেন। দ্রুত এগিয়ে যান তিনি ও তার দুই ছেলে হাসিবুর রহমান ও আজিবুর রহমান। তারা তিনজনে মেরে ফেলেন সাপগুলো।

এরপর রান্নাঘরের কোণায় থাকা গর্ত থেকে একে একে বের হতে থাকে আরো সাপ। সেগুলোও মেরে ফেলেন তারা। এক পর্যায়ে প্রতিবেশীরাও তাদের সঙ্গে যোগ দেন। সবমিলিয়ে তারা ১২৫টি সাপ মেরেছেন। পরে গর্ত খুঁড়ে বের করেন ১৩টি সাপের ডিম। সেগুলোও ভেঙে ফেলা হয়।

আক্কাছ আলী জানান, সাপগুলো দৈর্ঘ্যে এক থেকে দেড় ফুটের মতো। কোনো কোনো না আরো ছোট। কেবলই ডিম থেকে বেরিয়েছে। তারা মা সাপটিতে গর্ত থেকে পালিয়ে যেতে দেখেছেন। পুরনো মাটির বাড়ি হওয়ায় ইঁদুরের গর্তে ডিম দিয়ে বাচ্চা ফুটিয়েছে গোখরা। বাচ্চাগুলোর বাপ-মা মারা না পড়ায় এখন তার পরিবার আতঙ্কে রয়েছে। ভয়ে ছেলেমেয়েরা বাড়িতেই থাকতে চাইছে বলে জানান তিনি।

ঘটনার পর থেকে আক্কাছ আলীল বাড়িতে সাপ দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন এলাকাবাসী।

এর আগে মঙ্গলবার রাত ১১টার পর থেকে রাজশাহী নগরীর বুধপাড়া মহল্লায় মাজদার আলীর বাড়িতে মারা পড়ে ২৭টি গোখরা। বৃহস্পতিবার মারা পড়ে আরো একটি। এগুলোও বাচ্চা সাপ। প্রতিটির দৈর্ঘ্য আড়াই ফুটের মতো। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

Post A Comment: