রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে কর্মবিরতি শুরু করেছেন চিকিৎসকরা। ইন্টার্ন ডাক্তার ও সহকারি রেজিস্ট্রারের ওপর হামলার প্রতিবাদে তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে এ কর্মবিরতি শুরু করেন।
 রংপুর মেডিকেলে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি
 
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে কর্মবিরতি শুরু করেছেন চিকিৎসকরা। ইন্টার্ন ডাক্তার ও সহকারি রেজিস্ট্রারের ওপর হামলার প্রতিবাদে তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে এ কর্মবিরতি শুরু করেন।
ইন্টার্ন চিকিৎসকরা জানান, মেডিসিন ওয়ার্ডে সোমবার রাতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর নগরীর গুপ্তপাড়ার ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ রোগী ভর্তি হন। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা যথাসাধ্য চেষ্টা করেও তাকে বাঁচাতে পারেননি। বৃদ্ধের স্বজনরা অভিযোগ করেন চিকিৎসকদের অবহেলায় রোগী মারা গেছেন।

তারা জানান, এ নিয়ে রোগীর লোকজনের সঙ্গে ইন্টার্ন ডাক্তারদের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রোগীর লোকজন ইন্টার্ন ডাক্তারদের ওপর হামলা চালায়। এতে ইন্টার্ন ডাক্তার আল আমিন ও সহকারি রেজিস্ট্রার রামিম আল নুরসহ ৫ জন আহত হন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবিতে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা হাসপাতালের পরিচালকের কাছে অভিযোগ করেন। কিন্তু পরিচালক কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় মঙ্গলবার রাত থেকে মেডিসিন ওয়ার্ডের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কর্মবিরতি শুরু করেন।

ইন্টার্ন চিকিৎসক আল আমিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘কোনো কারণ ছাড়াই রোগীর লোকজন আমাদের ওপর হামলা চালায়। তারা আমাদের মারধর করে।’

রংপুর জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক শরিফুল ইসলাম জানান, ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে চিকিৎসকরা ধর্মঘট করছেন। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনিকভাবে নিষ্পত্তির আলাপ-আলোচনা চালানো হচ্ছে।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. মউদুদ হোসেন জানান, তিনি বিষয়টি শুনেছেন। আর কিছু বলতে রাজি হননি পরিচালক।

Post A Comment: