সাপের বাক্সে ইয়াবা এনে দিতে রাজি না হওয়ায় বরিশালে মান্না পাহাড়ি নামের বেদেকে কুপিয়ে আহত করার মামলায় সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইসরাত আমান রূপাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় ব্রাউন কম্পাউন্ড রোডস্থ নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
ইয়াবা কাণ্ডে নারী কাউন্সিলর গ্রেফতার

    সাপের বাক্সে ইয়াবা এনে দিতে রাজি না হওয়ায় বরিশালে মান্না পাহাড়ি নামের বেদেকে কুপিয়ে আহত করার মামলায় সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইসরাত আমান রূপাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় ব্রাউন কম্পাউন্ড রোডস্থ নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।


এর আগে গত বুধবার রাতে আহত সাপুড়ে মান্নার স্ত্রী কাজল বেগম বাদী হয়ে রূপাসহ ৬ যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় কাউন্সিলর রূপাকে ঘটনার হুকুমদাতা এবং নগরীর জিয়া সড়কে স্থানীয় যুবলীগ কর্মী তরিকুল ইসলাম রাজা, মো. ফিরোজ, সরজিৎ চন্দ্র রায়, রফিকুল ইসলাম বাদশা ও মাসুদ মোল্লা সহ ৬জনকে অভিযুক্ত করা হয়।

মামলার বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়েছে, সাপুড়ে মান্নাকে সাপের বাক্স করে কক্সবাজার থেকে ইয়াবা বহনের প্রস্তাব দেন যুবলীগ কর্মী রাজা ও কাউন্সিলর রূপা। এ প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে হুমকি দেন তারা। এ ঘটনায় সাপুড়ে মান্না কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

এর জের ধরে সোমবার রাতে রূপার নির্দেশে রাজা ও তার সহযোগীরা হত্যার উদ্দেশ্যে মান্নাকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেন। মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায় তারা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ মান্নাকে উদ্ধার করে শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে ভর্তি করে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রাণে বেঁচে গেলেও মান্নার পুরোপুরি সুস্থ হতে কয়েক মাস লেগে যেতে পারে।

কোতোয়ালি থানার ওসি শাহ মো. আওলাদ হোসেন জানান, মান্না পাহাড়িকে কুপিয়ে আহত করা মামলায় সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইসরাত আমান রূপাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Post A Comment: