পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির অভিযোগ আমলে নিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। তার পরিবারের সম্পদ নিয়ে নানা মহলে আলোচনার জন্ম নেয়। এর জেরে গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এমন সিদ্ধান্ত নেয় বলে সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে।
নওয়াজের দুর্নীতির মামলা আমলে নিয়েছেন আদালত!

    পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির অভিযোগ আমলে নিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। তার পরিবারের সম্পদ নিয়ে নানা মহলে আলোচনার জন্ম নেয়। এর জেরে গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এমন সিদ্ধান্ত নেয় বলে সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে।


পানামা পেপার কেলেঙ্কারির ঘটনায় যৌথ তদন্ত দল রোববার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে ১৫টি মামলা পুনরায় চালুর সুপারিশ করে। এ ১৫টি মামলার মধ্যে ৫টি মামলা আবারও চালু করার জন্য তদন্ত কমিটি বিশেষ আবেদন জানায়।

পানামা পেপার কেলেঙ্কারির তালিকায় নওয়াজ ও তার পরিবারের নাম থাকায় সুপ্রিম কোর্ট যৌথ তদন্ত কমিটি গঠন করে। কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই আবারও মামলাগুলো চালুর বিষয়টি উত্থাপন করা হয়।


ওই প্রতিবেদনে নওয়াজ শরীফের সম্পদের উৎস সম্পর্কে প্রশ্ন তোলা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদের মালিক নওয়াজ শরীফ ও তার পরিবারের অন্য সদস্য। সম্পদের হিসাব চাওয়ার পরও তা দিতে ব্যর্থ হয় নওয়াজ পরিবার।

লন্ডনে নওয়াজ শরীফের পরিবারের কেনা ৮টি অ্যাপার্টমেন্টও এ তদন্তের অধীনে রয়েছে। এছাড়া ক্ষমতার অপব্যবহার করে তিনি ও তার পরিবার সম্পদের পাহাড় গড়ছে কিনা সেটিও তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।

অবশ্য এসব অভিযোগ বরাবরই নাকচ করে আসছেন নওয়াজ শরীফ এবং তার পরিবার। লন্ডনের ফ্ল্যাট কেনার বিষয়ে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর দাবি, সেগুলো বৈধভাবেই কেনা। যদিও সেগুলোর কোনোটির তিনি ব্যক্তিগতভাবে মালিক নন।

অবশ্য এমন বক্তব্যের পরও রক্ষা মিলছে না নওয়াজ শরীফের। বিরোধীদলগুলো বলছে, রাজনৈতিক ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে তিনি ও তার পরিবার নিজেদের সমৃদ্ধ করে চলেছেন। দুর্নীতির কারণে বিরোধী দলগুলো তাই নওয়াজ শরীফের পদত্যাগেরও দাবি জানিয়ে আসছে।

Post A Comment: