সিলেট বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের শ্রেণিকক্ষ থেকে এক ছাত্রলীগকর্মীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে কে বা কারা তাকে তাকে গুলি করেছে তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। নিহত খালেদ আহমদ লিটু (২৩) উপজেলা ছাত্রলীগের পাভেল গ্রুপের কর্মী। তিনি পৌরশহরের নয়াগ্রাম রোডে একটি মোবাইল দোকানের মালিক। তার বাড়ি পৌরসভার পণ্ডিতপাড়া গ্রামে।
শ্রেণিকক্ষে ছাত্রলীগকর্মীকে গুলি করে হত্যা, আটক ৩

    সিলেট বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের শ্রেণিকক্ষ থেকে এক ছাত্রলীগকর্মীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে কে বা কারা তাকে তাকে গুলি করেছে তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। নিহত খালেদ আহমদ লিটু (২৩) উপজেলা ছাত্রলীগের পাভেল গ্রুপের কর্মী। তিনি পৌরশহরের নয়াগ্রাম রোডে একটি মোবাইল দোকানের মালিক। তার বাড়ি পৌরসভার পণ্ডিতপাড়া গ্রামে।


বিয়ানীবাজার থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, কলেজের শ্রেণিকক্ষ থেকে বহিরাগত ছাত্রলীগকর্মী খালেদ আহমদ লিটুর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গুলিটি কোথা থেকে হয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

তিনি জানান, শ্রেণিকক্ষের ভেতর না বাইরে থেকে গুলি করা হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। নিরাপত্তার স্বার্থে কলেজ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

তবে কী কারণে লিটু কলেজের ওই কক্ষে অবস্থান করছিলেন, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি বলেও জানান ওসি।

জানা গেছে, সকালে কলেজের প্রথম বর্ষের দুই ছাত্রের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে কলেজ ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ সময় পুলিশের পাঁচ সদস্য কলেজের প্রধান ফটকে দায়িত্বে ছিলেন। গুলির শব্দে তারা শ্রেণিকক্ষে গিয়ে লিটুর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। তবে এ সময় সেখানে আর কাউকে পাওয়া যায়নি।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের সোমবারের সকল পরীক্ষা স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে কলেজ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা জানান, গুলিটি খালেদ আহমদ লিটুর মাথায় লেগেছে। পুলিশ এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করেছে।

Post A Comment: