ফিলিপাইনের একটি ক্যাসিনোতে বন্দুকধারীর ‘হামলা’র ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর ক্যাসিনোটির ভেতরে অভিযান চালিয়ে ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে স্থানীয় পুলিশ এটিকে বন্দুকধারীর হামলা না বলে ‘ডাকাতি’ বলে উল্লেখ করেছে।

 

ফিলিপাইনের একটি ক্যাসিনোতে বন্দুকধারীর ‘হামলা’র ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর ক্যাসিনোটির ভেতরে অভিযান চালিয়ে ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে স্থানীয় পুলিশ এটিকে বন্দুকধারীর হামলা না বলে ‘ডাকাতি’ বলে উল্লেখ করেছে।

স্থানীয় সময় ২ জুন শুক্রবার দিবাগত রাতে দেশটির ওয়ার্ল্ড ম্যানিলা ইন্টারটেইনমেন্ট কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে বলে এ তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো।

দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এ ঘটনায় অধিকাংশের মৃত্যু হয়েছে ক্যাসিনোটির ভেতরে সৃষ্ট ধোঁয়া থেকে।

এর আগে সংশ্লিষ্ট পুলিশ জানিয়েছিল, এ হামলার ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে সকালে ক্যাসিনোটির ভেতরে উদ্ধারকার্যক্রম চলাকালে ৩৬জনের মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশের ভাষ্য, ডাকাতি করতে যেয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। এটি সন্ত্রাসী হামলা নয়।

রোনাল্ড ডেলা রোজা নামে স্থানীয় পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন, হামলাকারী ব্যক্তি একা ওই ক্যাসিনোতে প্রবেশ করেন। এসময় তিনি জুয়ার আসরকে কেন্দ্র করে গুলি চালান।

স্থানীয় একটি রেডিওকে দেওয়া সাক্ষাতকারে রোনাল্ড জানান, সিসিটিভি ফুটেজ থেকে দেখা গেছে ওই হামলাকারী জুয়ার আসরে থাকা 'চিপস' দিয়ে তার ব্যাগ ভর্তি করেন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী হামলাকারীর মরদেহ খুঁজে পেয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী ব্যক্তি ক্যাসিনোতে থাকা একটি বিছানায় শুয়ে পড়েন। এরপর তিনি একটি কম্বল দিয়ে নিজেকে মুড়িয়ে ফেলেন। এবং আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেন।

তবে এর আগে পুলিশ জানিয়েছিল, ওই ব্যক্তি নিজেই নিজের গুলিতে আত্মহত্যা করেন।

এদিকে এ ঘটনায় আহত ৫০জনের বেশি লোকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Post A Comment: