চলছে মুসলমানদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ রমজান মাস। প্রতিবছর রমজানে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হলেও, এই বছরে হচ্ছে ব্যতিক্রম। কারণ উত্তরপ্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবছর আর কোন ইফতার মাহফিলের আয়োজন করছেন না।
যোগীর রাজ্যে হবে না ইফতার মাহফিল 


চলছে মুসলমানদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ রমজান মাস। প্রতিবছর রমজানে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হলেও, এই বছরে হচ্ছে ব্যতিক্রম। কারণ উত্তরপ্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবছর আর কোন ইফতার মাহফিলের আয়োজন করছেন না।


উল্লেখ্য পূর্ববর্তী বছরগুলোতে কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজ পার্টির যারাই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর মসনদে বসেছেন, তারাই আয়োজন করেছেন ইফতার মাহফিলের। এমনকী বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কল্যাণ সিং, রাজনাথ সিং বা রামপ্রকাশ গুপ্তও এই ধারা অব্যাহত রেখেছিলেন।

কিন্তু, এবার সেই রীতিতে ছেদ পড়তে চলেছে বলে উত্তরপ্রদেশ বিজেপি বা সর্বভারতীয় বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম সুত্রে এমনই আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এনিয়ে অবশ্য সরকারি ভাবে কোনো ঘোষণা এখনও করা হয়নি। যদিও চৈত্র নবরাত্রিতে বিজেপি নেতাদের জন্য ফলাহার পার্টির আয়োজন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ।

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এখনও তিন মাসও সম্পূর্ণ করেননি যোগী আদিত্যনাথ। এরই মধ্যে বেআইনি কসাইখানা বন্ধ করে দেওয়া, যন্ত্রচালিত কসাইখানার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারির কথা বলে বিতর্ক উস্কে দিয়েছেন যোগী। সেই বিতর্কে নতুন মাত্রা যোগ হতে চলেছে ইফতার মাহফিলের আয়োজন না করা।

মুখ্যমন্ত্রী যোগীর সরকারি আবাসন ৫ নম্বর কালীদাস মার্গে ইফতার মাহফিল হবে না, এই খবর বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হতেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ড দাবি করেছে, মুখ্যমন্ত্রী ইফতার মাহফিল আয়োজন না করলে, তা দেশের অসাম্প্রদায়িক ভাবমূর্তিতে আঘাত করবে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও অবশ্য ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন না।

Post A Comment: