যশোরে পুলিশের হাতে আটকের পর হাতকড়াসহ ‘পালিয়ে যাওয়া’ যুবক কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। সোমবার ভোরে যশোর-নড়াইল সড়কের আয়াপুর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধ হয়। নিহত সাব্বির হোসেন (২৫) বাঘারপাড়ার খলিলপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে। বাঘারপাড়া থানার ওসি শেখ মতিয়ার রহমান জানান, রোববার রাতে উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিয়ামুল ফোর্সসহ হাইওয়ে ডিউটিতে ছিলেন। এ সময় যশোর-নড়াইল সড়কের আয়াপুরের নজরুল ইসলামের বাড়ির কাছে দুই দল মাদক বিক্রেতার মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে বলে জানতে পারেন।

    যশোরে পুলিশের হাতে আটকের পর হাতকড়াসহ ‘পালিয়ে যাওয়া’ যুবক কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। সোমবার ভোরে যশোর-নড়াইল সড়কের আয়াপুর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধ হয়। নিহত সাব্বির হোসেন (২৫) বাঘারপাড়ার খলিলপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে। বাঘারপাড়া থানার ওসি শেখ মতিয়ার রহমান জানান, রোববার রাতে উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিয়ামুল ফোর্সসহ হাইওয়ে ডিউটিতে ছিলেন। এ সময় যশোর-নড়াইল সড়কের আয়াপুরের নজরুল ইসলামের বাড়ির কাছে দুই দল মাদক বিক্রেতার মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে বলে জানতে পারেন।


তিনি জানান, পুলিশ সেখানে উপস্থিত হলে মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। সেখানে এক যুবককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে পুলিশ লাশটি সাব্বিরের বলে পরিচয় নিশ্চিত হয়।

নিহতের ঘাড়ের বাম পাশে মাথার নিচে একটি গুলি লেগেছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ১০৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, রোববার সন্ধ্যায় বাঘারপাড়া থানা পুলিশ উপজেলার খলিলপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় অস্ত্র, মাদক, মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় তিনজনকে।

এদের মধ্যে সাব্বির হোসেন (২৫) নামে একজন হাতকড়াসহ পালিয়ে যান। উদ্ধার লাশটিই তার।

Post A Comment: