যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও তার স্ত্রী মিশেল হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর প্রাথমিকভাবে তাদের মেয়ে সাশার লেখাপড়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত ওয়াশিংটন থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এখন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানীতে তারা স্থায়ীভাবে বসবাস করতে যাচ্ছেন বলেই শোনা যাচ্ছে।
 


যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও তার স্ত্রী মিশেল হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর প্রাথমিকভাবে তাদের মেয়ে সাশার লেখাপড়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত ওয়াশিংটন থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এখন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানীতে তারা স্থায়ীভাবে বসবাস করতে যাচ্ছেন বলেই শোনা যাচ্ছে।


ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়াশিংটনের কালোরামা এলাকায় ওবামা দম্পতি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার ব্যয়ে একটি বাড়ি কিনেছেন। যদিও জানুয়ারি মাসে হোয়াইট হাউজ ছেড়ে এই বাড়িতেই ভাড়াটিয়া হিসেবে ওঠেছিলেন ওবামা দম্পতি। হোয়াইট হাইজ থেকে মাত্র দুই মাইল দূরে এই বাড়িতে রয়েছে আটটি বেডরুম ও সাড়ে নয়টি বাথরুম।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন কেউ কেউ বলেছিলেন, ১৬০০ পেনসিলভানিয়াতে উঠতে পারেন ওবামা। ওবামা ঘোষণা দিয়েছিলেন, হোয়াইট হাউজের কাছাকাছি ওয়াশিংটনেই পরিবার নিয়ে থাকতে চান তিনি। তার মেয়ে সাশা যাতে করে সাইডওয়েল ফ্রেন্ডস স্কুলে পড়াশোনা শেষ করতে পারেন। 

বাড়িটি বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ও তার জামাই জারেড কুশনার যে এলাকায় থাকেন সেখানেই অবস্থিত। অভিজাত এই কালোরামার অন্যান্য বাসিন্দাদের মধ্যে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন ও অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা ও ওয়াশিংটন পোস্টের মালিক জেফ বেজোস। অভিজাত এলাকাটিতে সরকারি মন্ত্রী, সুপ্রিম কোর্টের বিচারক, অর্থমন্ত্রী এবং রাজনীতি ও ব্যবসা অঙ্গনের অন্যান্য ক্ষমতাধর ব্যক্তিরা বাস করেন। এর আগে উড্রো উইলসন ও উইলিয়াম হাওয়ার্ড টাফট হোয়াইট হাউস থেকে এই এলাকায় এসে উঠেছিলেন।

যদিও হোয়াইট হাউজ থেকে বিদায় নেয়ার পর বিদায়ী প্রেসিডেন্টের রাজধানীতেই অবস্থান করা খুবই বিরল একটি ঘটনা। ১৯১৩ ও ১৯২১ সালে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করা উইড্রো উইলসন হোয়াইট হাউজ থেকে বিদায় নেয়ার পর রাজধানীতেই অবস্থান করা সর্বশেষ প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

Post A Comment: