উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে। ফলে রোববার বিকাল থেকে মংলায় থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে।ঢাকা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুস সকাল ১১টার দিকে মোবাইল ফোনে পরিবর্তন ডটকমকে জানান, নিম্নচাপের কারণে কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে। এ কারণে মংলা বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
নিম্নচাপের প্রভাবে মংলায় থেমে থেমে বৃষ্টি, দমকা বাতাস 


 উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে। ফলে রোববার বিকাল থেকে মংলায় থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে।ঢাকা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুস সকাল ১১টার দিকে মোবাইল ফোনে  জানান, নিম্নচাপের কারণে কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে। এ কারণে মংলা বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।


তিনি আরো জানান, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপে রুপ নেওয়ায়  মংলায় সোমবার পুরোদিন থেমে থেমে বৃষ্টি হবে। তবে মঙ্গলবার থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করবে।

নিম্নচাপের প্রভাবে মংলায় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ১ থেকে ২ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস দেখা দিতে পারে বলেও জানান রুহুল কুদ্দুস বলেন।


এদিকে মংলা বন্দরের হারবার মাষ্টার কমান্ডার মো. ওলিউল্লাহ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, “নিম্নচাপের কারণে মংলা বন্দরে অবস্থানরত দেশি-বিদেশি জাহাজে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে মংলা বন্দরে ক্লিনকারবাহী একটি বাংলাদেশী জাহাজ ‘বসুন্ধরা- ৮’ ও  টিএসপি সারবাহী লাইবেরিয়ান পতাকাবাহী জাহাজ ‘ব্রাজিন’ অবস্থান করছে।”

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম  বলেন, ‘নিম্নচাপ হওয়ায় সুন্দরবনে অবস্থানরত জেলেদের সব ধরণের সহযোগিতা করতে রেঞ্জগুলির বন কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছি। জেলেরা নিরাপদে আছেন।’

অন্যদিকে মংলা বণিক সমিতির সভাপতি হাবিব মাষ্টার  বলেন, ‘রোববার বিকাল থেকে মংলায় টানা বৃষ্টির ফলে ব্যবসা বাণিজ্যে দেখা দিয়েছে মন্দাভাব। প্রয়োজন ছাড়া কেউই ঘর থেকে বের হচ্ছেন না।’

সোমবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। নিম্নচাপটি মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২০৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হতে পারে। এতে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।’

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ‘নিম্নচাপটি কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিলোমিটার বা তারও বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

Post A Comment: