রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় পাহাড়িদের ঘরবাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা তদন্ত করবে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। কমিশনের সদস্য বাঞ্ছিতা চাকমাকে প্রধান করে কমিটি গঠন করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।
 


রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় পাহাড়িদের ঘরবাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা তদন্ত করবে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। কমিশনের সদস্য বাঞ্ছিতা চাকমাকে প্রধান করে কমিটি গঠন করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।


মঙ্গলবার করা তিন সদস্যের এই কমিটিকে চার কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কমিশনের অপরাধ ও অনুসন্ধান বিভাগের পরিচালক শরীফ উদ্দিন ।

শরীফ উদ্দিন জানান বাঞ্ছিতা চাকমা রাঙ্গামাটিতেই থাকেন। ঢাকা থেকে মানবাধিকার কমিশনের সদস্যরা সেখানে গেলেই তদন্ত শুরু হবে। তারা স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলা ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মতামত নেবে।

মানবাধিকার কমিশনের রাঙ্গামাটি অফিসের উপপরিচালক ও তদন্ত কমিটির সদস্য গাজী সালাহউদ্দিন ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ঢাকা থেকে মানবাধিকার কমিশনের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদুর রহমান আসবেন। এরপর বাঞ্ছিতা চামকার নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কাজ করব।’

আইন অনুযায়ী মানবাধিকার কমিশনের কোনো ব্যবস্থা নেয়ার সুযোগ নেই। এই ঘটনাতেও কমিশন কেবল প্রতিবেদন দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করতে পারবে।

গত বৃহস্পতিবার রাঙামাটি লংগদুতে যুবলীগ নেতা নুরুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার হয়। তার অনুসারীদের অভিযোগ নুরুলকে খুন করা হয়েছে। এই হত্যার জন্য পাহাড়ী সশস্ত্র সংগঠনগুলোকে দায়ী করে পরদিন শুক্রবার সকালে লংগদুতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে কয়েক হাজার বাঙালি। এই মিছিল থেকেই তিনটিলা, বাইট্টাপাড়া এবং মানিকজোরছড়া এলাকায় শতাধিক বাড়িঘরে আগুন দেওয়া হয় বলে অভিযোগ পাহাড়িদের।

Post A Comment: