পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার পার্শ্ববর্তী পূর্ব চণ্ডিপুর গ্রামের দিনমজুর বীরেন্দ্রনাথ মজুমদার ও তার শতবর্ষী মাকে নিয়ে নির্মিত হচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্র। বীরেন ও তার মাকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে এমন খবর চাউর হওয়ায় ইন্দুরকানীতে উৎসুক জনতার মাঝে চলছে মাতৃভক্তের আলোচনা। মাতৃভক্তের এই দৃশ্যটি চিত্রায়িত হলে মায়ের প্রতি ভালবাসা, ভক্তি শ্রদ্ধা দেখে সবাই শিখতে পারবে বলে মনে করছেন অনেকে।
বীরেন ও তার মাকে নিয়ে নির্মিত হচ্ছে মাতৃভক্ত
 

পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার পার্শ্ববর্তী পূর্ব চণ্ডিপুর গ্রামের দিনমজুর বীরেন্দ্রনাথ মজুমদার ও তার শতবর্ষী মাকে নিয়ে নির্মিত হচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্র। বীরেন ও তার মাকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে এমন খবর চাউর হওয়ায় ইন্দুরকানীতে উৎসুক জনতার মাঝে চলছে মাতৃভক্তের আলোচনা। মাতৃভক্তের এই দৃশ্যটি চিত্রায়িত হলে মায়ের প্রতি ভালবাসা, ভক্তি শ্রদ্ধা দেখে সবাই শিখতে পারবে বলে মনে করছেন অনেকে।


এক অজ পাড়াগাঁয়ে মাকে নিয়ে দরিদ্র পরিবারে বসবাস করতেন বীরেন্দ্রনাথ। ইন্দুরকানী উপজেলা সদর থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পূর্ব চণ্ডিপুর গ্রাম থেকে শতবর্ষী মাকে মাথার টুকরিতে নিয়ে পায়ে হেঁটে দশ মাইল পথ পাড়ি দিয়ে ডাক্তার দেখাতে যেতেন বীরেন্দ্রনাথ। মাকে তিনি অনেক ভালবাসতেন। নিজের হাতেই সবসময় মায়ের সেবা যত্ন করতেন তিনি। আর মায়ের এ সেবার জন্যে পঞ্চাশ বছরের জীবনেও থেকে গেছেন অবিবাহিত।

আর তাই এই বহুল আলোচিত মাতৃভক্ত বীরেন মজুমদার ও তার মা উষা রানীর বাস্তব কাহিনীর গল্প নিয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে চলচ্চিত্র ‘মাতৃভক্ত’। চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন নির্মাতা শামছুল ইসলাম স্বপন।

এ বিষয়ে নির্মাতা শামছুল ইসলাম স্বপন বলেন, আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় ‘মায়রে মাথায় নিয়া হাঁটতে মোর কোন কষ্ট অয় না’ এবং ইত্যাদির প্রতিবেদন দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে সিনেমা বানানোর ইচ্ছে প্রকাশ করি। ইত্তেফাক পত্রিকার ইন্দুরকানী উপজেলা প্রতিনিধি আহাদ শিমুলের মাধ্যমে বীরেন্দ্রনাথের সাথে যোগাযোগ করি। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মাকে নিয়ে ডাক্তার দেখাতে আসলে আহাদ শিমুলের ক্যামেরায় ধরা পড়ে এ দৃশ্যটি। এরপর প্রথম বীরেন্দ্রনাথকে নিয়ে পত্রিকায় খবর প্রকাশ করেন তিনি। এছাড়া দেশের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদিতেও বীরেন ও তার মাকে নিয়ে অনুষ্ঠান প্রচারিত হলে সবার দৃষ্টি কাড়ে। বীরেন্দ্রনাথ পিরোজপুর থেকে ঢাকায় এসে আমাকে চলচ্চিত্র নির্মাণ করার অনুমতি দেন।

২০১৫ সালে ১১৩ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন বীরেনের মা উষা রানী। মাকে মাথায় নিয়ে তাকে আর পাড়ি দিতে হবে না দীর্ঘপথ। কিন্তু তার মাতৃভক্তির সেই দৃষ্টান্ত চলচ্চিত্রে গেঁথে রাখতে তিন বছর ধরে প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন নির্মাতা স্বপন।

তিনি জানান, বর্তমানে চলচ্চিত্রের গান রেকর্ডিংয়ের কাজ চলছে। বেশকিছু বাউল ও কীর্তন গান থাকছে চলচ্চিত্রটিতে। চলছে পাত্র-পাত্রী ও লোকেশন বাছাই। আগামী বছর থেকে চিত্র ধারণের কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

Post A Comment: