দীর্ঘ ৫ মাস পর মিয়ানমারে আটক হওয়া কুয়াকাটার ৯ জেলে বাড়ি ফিরেছেন। রাজধানী ইয়াঙ্গুন থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সোমবার রাত ৯ টা ৩৯ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা। মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে এসব জেলেদের কুয়াকাটার আলীপুরে নিয়ে এলে তাদের একনজর দেখতে শত শত মানুষ ভিড় জমায়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে ফিরে পেয়ে অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।
মিয়ানমারের জেল থেকে ফিরল ৯ জেলে, একজনের মৃত্যু
 

   দীর্ঘ ৫ মাস পর মিয়ানমারে আটক হওয়া কুয়াকাটার ৯ জেলে বাড়ি ফিরেছেন। রাজধানী ইয়াঙ্গুন থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সোমবার রাত ৯ টা ৩৯ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা। মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে এসব জেলেদের কুয়াকাটার আলীপুরে নিয়ে এলে তাদের একনজর দেখতে শত শত মানুষ ভিড় জমায়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে ফিরে পেয়ে অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।


ফিরে আসা জেলেরা হলেন— কলাপাড়া উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নে মাইটভাঙ্গা গ্রামের ট্রলার মাঝি আলী হোসেন গাজী (৩৫), জেলে কবির হাওলাদার (৩২), সোবাহান ঘরামী (৪৫), আলমগীর মাতুব্বর (৩৫), নজরুল গাজী (৩২), হাচান হাওলাদার (১৭), মহিপুর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের রুবেল (২৫), জাহিদুল (১৮) ও শামীম (১৬)।

অনাহারে ও খাবার পানির অভাবে কাওছার মুসুল্লী (১৮) নামে এক জেলে মারা যান বলে জানিয়েছেন ফিরে আসা জেলেরা।

লতাচাপলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, মিয়ানমারে আটক হওয়া জেলেদের পক্ষে আইনী প্রক্রিয়ায় সহায়তাকারী মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশের হেড অব বাংলাদেশ কনস্যুলেট (অকিয়াব) শাহ আলম খোকনের আবেদনের প্রেক্ষিতে এদেরকে সাধারণ ক্ষমা করে মিয়ানমার সরকার। এরপর ওইসব পরিবারের পক্ষ থেকে প্রত্যেকের জন্য বিমান ভাড়া বাবদ ১৫ হাজার ৫শ’ টাকা করে জমা দিতে হয়। এর মধ্যদিয়ে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা চূড়ান্ত করা হয়।

সূত্র জানায়, গত ১৬ জানুয়ারি এফবি ফয়সাল নামের একটি মাছধরা ট্রলার নিয়ে সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে কুয়াকাটার ১০ জেলে। ২৮ জানুয়ারি ইঞ্জিন বিকল হয়ে সমুদ্রে ভাসতে থাকে ট্রলারটি। ১৫ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের কোস্টগার্ড এদেরকে আটক। এ সময় অনাহারে ও খাবার পানির অভাবে কাওছার মুসুল্লী নামে এক জেলে মারা যান। কাওছার মুসুল্লীর লাশ মিয়ানমার পুলিশ উদ্ধার করে সেখানেই দাফন করেছে বলে ফিরে আসা জেলেরা জানিয়েছেন।

Post A Comment: