কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও রোবটিক্স এর মতো প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের জন্য জাপানের টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান সফটব্যাংক ও সৌদি আরবের প্রধান সার্বভৌম অর্থ তহবিল ৯৩০০ কোটি ডলারেরও বেশি অর্থ সংগ্রহ করেছে। রয়টার্স এর খবরে বলা হয়, ২০ মে শনিবার বিশ্বের সবচেয়ে বড় বেসরকারি তহবিল এর পক্ষ থেকে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।



কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও রোবটিক্স এর মতো প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের জন্য জাপানের টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান সফটব্যাংক ও সৌদি আরবের প্রধান সার্বভৌম অর্থ তহবিল ৯৩০০ কোটি ডলারেরও বেশি অর্থ সংগ্রহ করেছে। রয়টার্স এর খবরে বলা হয়, ২০ মে শনিবার বিশ্বের সবচেয়ে বড় বেসরকারি তহবিল এর পক্ষ থেকে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ সফরের সময় তহবিলটির পক্ষ থেকে নতুন এ ঘোষণা দেওয়া হয়। ট্রাম্পের এ সফরে যুক্তরাষ্ট্র আর সৌদি আরবের মধ্যে কয়েকশ’ কোটি ডলারের ব্যবসায় চুক্তি হয়েছে। শনিবার সফটব্যাংক চেয়ারম্যান মাশায়শি সান ও রিয়াদে ছিলেন। 

সফটব্যাংক ভিশন ফান্ড এক বিবৃতিতে জানায়, ‘তথ্য বিপ্লবের পরবর্তী ধাপ পার হতে যাচ্ছে, আর এটি সম্ভব করতে যে ব্যবসাগুলো চালু করতে হবে সেগুলোর জন্য বড় অংকের দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ প্রয়োজন।’ সফটব্যাংক এর চেয়ারম্যান মাশায়শি সান ২০১৬ সালের অক্টোবরে এই তহবিলের পরিকল্পনা প্রকাশ করেন। এরপর থেকে এটি বিশ্বের বড় বড় বিনিয়োগকারীদের অঙ্গীকার পেয়ে আসছে। 

সফটব্যাংক আর সৌদি আরবের পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (পিআইএফ) এর সঙ্গে এই তহবিলে যুক্ত হওয়া বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- আবু ধাবি’র মুবাদালা ইনভেস্টমেন্ট, মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল, চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কোয়ালকম, তাইওয়ানিজ প্রতিষ্ঠান ফক্সকন ও জাপানের ইলেকট্রনিক প্রতিষ্ঠান শার্প।

এই তহবিল সৌদি আরবকে বিদেশি প্রযুক্তি খাতে প্রবেশে সহায়তা করবে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়। তেলের মূল্য পরে যাওয়ায় সৌদি আরবের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে আর দেশটির নীতিনির্ধারকরা এখন নতুন খাতের দিকে নজর দিতে চাচ্ছেন।

Post A Comment: